সুনামগঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকা

সুনামগঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩৩ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থান। ফাইল ছবি

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থান। ফাইল ছবি

দুই বছর আগে প্রথম পরিচয়। পরিচয়ের সূত্র ধরে একটু-আধটু কথা বলা। ধীরে ধীরে জড়িয়ে পড়েন গভীর প্রেমের সম্পর্কে। এর মধ্যে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কেও জড়ায় প্রেমিক। তবে বর্তমানে ওই তরুণীকে এড়িয়ে চলছে প্রেমিক মোক্তার মিয়া ওরফে আকাশ। 

পরে কোন উপায় না পেয়ে এক পর্যায়ে বিয়ের দাবিতে গত সোমবার বিকেলে প্রেমিক আকাশের বাড়িতে অবস্থান করে ওই প্রেমিকা। এ খবরে বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে আকাশ।

অভিযোগ উঠেছে, স্ত্রীর স্বীকৃতি চাইলে উল্টো প্রেমিক মোক্তার মিয়ার পরিবারের লোকজন ওই তরুণীর ওপর গত চারদিন ধরে বিভিন্নভাবে নির্যাতন, হুমকি আর ভয়ভীতি দেখাচ্ছে।

প্রেমিক মোক্তার মিয়া উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউপির তেলীগাও গ্রামের ঠাকুর হাটির উসমান মিয়ার ছেলে। আর ওই প্রেমিকার বাড়ি একই গ্রামে। 

জানা যায়, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ওই প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করার জন্য তার ঘরে প্রবেশ করে প্রেমিক আকাশ। সে সময় তরুণীর মা-বাবা তাকে আটক করে। এক পর্যায়ে প্রেমিক মোক্তার মিয়া বিয়ে আশ্বাস দিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। 

ওই তরুনীর বাবা ও মা জানান, তারা গরিব মানুষ। দিনে আনে, দিনে খান। গত সোমবার সকালে কাজের সন্ধানে তারা অনত্র গিয়ে বিকেলে বাড়িতে ফিরে দেখে তাদের মেয়ে ঘরে নেই। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তার মেয়ে প্রেমিক আকাশের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছে। 

তারা অভিযোগে আরো বলেন, আকাশের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় আমার মেয়েকে স্ত্রীর স্বীকৃতি না দিয়ে মারপিট ও নির্যাতন করছে। মোক্তারের বড় ভাই এরশাদ সর্দার বারবার পুলিশের ভয় দেখাচ্ছে। তারা টাকা দিয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন,ইজ্জতের মূল্য তো আর টাকায় পূরণ হয় না।

এদিকে প্রেমিক মোক্তার মিয়ার বড় ভাই এরশাদ সর্দার জানান, এক তরুণী গত সোমবার থেকে আমাদের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছে। তাদের প্রতিপক্ষরা হয়রানি ও ফাঁসানোর জন্য এমনটা করছে বলে তিনি দাবি করেন।

শ্রীপুর উত্তর ইউপির ৬নং ওয়ার্ড সদস্য নুরুল আমিন জানান, এ ঘটনায় উভয়পক্ষের লোকজনকে সামাজিকভাবে বিষয়টি শেষ করতে বলা হয়েছে।

তাহিরপুর থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান জানান, এ খবরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমের পরিবার থেকে অভিযোগ পেলে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর