সিলেটে তিন নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে

সিলেটে তিন নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে

সিলেট প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২২:৩৫ ১২ জুলাই ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে সিলেটের নদ নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। রোববার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সিলেটের সুরমা কুশিয়ারা ও সারি নদীর তিনটি পয়েন্টে বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, রোববার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সুরমা নদীর পানি কানাইঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার ৭৮ সেন্টিমিটার, সিলেট বরইকান্দি পয়েন্টে ১০ সেন্টিমিটার ও সারি নদীর পানি সারিঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার ৬ সেন্টিমিটার ও কুশিয়ারা নদীর পানি ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে ৩২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এদিকে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে জেলার গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, কানাইঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলাসহ বিভিন্ন উপজেলার নিম্নাঞ্চল পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন অসংখ্য পরিবার। এছাড়া সুরমা নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে সিলেট নগরীর কয়েকটি এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে।

গোয়াইনঘাট ইউএনও মো. নাজমুস সাকিব বলেন, ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের কারণে উপজেলার নিম্নাঞ্চলগুলো প্লাবিত হয়েছে। বন্যার্তদের আশ্রয়ের জন্য ২০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পাশাপাশি পানিবন্দী মানুষজনের জন্য জরুরি ত্রাণ সহায়তা চেয়ে ডিসির কার্যালয়ে বার্তা পাঠানো হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ ইউএনও সুমন আচার্য্য জানান, এরইমধ্যে উপজেলার ৩৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। মসজিদে মাইকিং করে জানিয়ে দেয়া হয়েছে বন্যার পানিতে আটকে পড়ার আগেই যেন মানুষ আশ্রয়ে চলে যান।

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী মুহাম্মদ শহীদুজ্জামান সরকার জানান, রোববার সন্ধ্যা পর্যন্ত সিলেটের সুরমা, কুশিয়ারা ওসারি নদীর বেশ কয়েকটি পয়েন্টে বিপৎসীমার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। টানা বৃষ্টিপাত ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল অব্যাহত থাকলে সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ