সিংগাইরে শিক্ষা অফিসের সিলেবাস বাণিজ্য তুঙ্গে!

সিংগাইরে শিক্ষা অফিসের সিলেবাস বাণিজ্য তুঙ্গে!

সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:১৫ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সিলেবাস নিয়ে তুমুল বাণিজ্যের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ১২ পৃষ্ঠার সিলেবাস ২৫ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। ১৯ হাজার শিক্ষার্থীর কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে লাখ টাকা।

জানা গেছে, উপজেলার ৯৭টি স্কুলে প্রতিটি সিলেবাস ২০ টাকায় বিক্রি করছে শিক্ষা অফিস। সেসব সিলেবাস পাঁচ টাকা লাভে শিক্ষার্থীদের কাছে বিক্রি করছে স্কুলগুলো।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, বিদ্যালয়ের উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মো. ফারুক হোসেনের কাছ থেকে সিলেবাস কিনে নিচ্ছেন শিক্ষকরা।

একাধিক শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গেল বছরও সিলেবাস কিনে নিতে হয়েছে। তখন দাম ছিল ১০ টাকা। এ বছর ২০ টাকা করে নেয়া হচ্ছে প্রতিটি সিলেবাস।

সিংগাইর বাজারের স্যামুয়েল বই ঘরের স্বত্বাধিকারী খন্দকার ওয়াহেদ বলেন, ১২ পৃষ্ঠার সাদাকালো সিলেবাস ছাপাতে সর্বোচ্চ ৭-৮ টাকা খরচ হতে পারে। ২০ টাকা নেয়ার কোনো যুক্তি নেই।

সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ফারুক হোসেন বলেন, শিক্ষা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিটি সিলেবাসের দাম ২০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

উপজেলা সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি লিয়াকত হোসেন বাহার বলেন, সিলেবাস প্রণয়নে আমাদের মতামত নেয়া হলেও দাম নির্ধারণের বিষয়ে আমরা কিছুই জানি না।

সিংগাইর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সৈয়দা নার্গিস আক্তার বলেন, স্কুলগুলোর চাহিদার ভিত্তিতে মূল্য নির্ধারণ করে সিলেবাস ছাপানো হয়েছে। এবারের সিলেবাস বড় হওয়ায় দাম দ্বিগুণ করা হয়েছে। এতে কারো দ্বিমত নেই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর