Alexa সাবেক স্বামীর এসিডে ঝলসে গেল স্ত্রী-ছেলের শরীর

সাবেক স্বামীর এসিডে ঝলসে গেল স্ত্রী-ছেলের শরীর

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০১:০২ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ডাক্তার দেখাতে এসে সাবেক স্বামীর ছোড়া এসিডে ঝলসে গেছেন এক নারী ও তার চার বছরের শিশুপুত্র।

হতাহতদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হলেও আশঙ্কাজনক অবস্থায় ছেলেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে রেফার্ড করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত ৭টার দিকে ময়মনসিংহের সারদা ঘোষ রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় সাবেক স্বামী হাফিজ আহমেদকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। 

পুলিশ ও স্বজনরা জানায়, সাত বছর আগে ত্রিশাল উপজেলার মোক্ষপুর ইউপির মোক্ষপুর গ্রামের হাফিজ আহমেদের সঙ্গে বিয়ে হয় পৌর শহরের ১ নম্বর ওয়ার্ডের নামাপাড়া এলাকার রূপালী আক্তারের। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে নির্যাতন করতেন স্বামী হাফিজ আহমেদ। কয়েক দফা যৌতুক দেয় রূপালীর পরিবার। পরবর্তীতে আরো যৌতুক দাবি করলে তা দিতে না পারায় বছর খানেক আগে স্ত্রীকে তালাক দেন হাফিজ।

এ নিয়ে রূপালী আক্তার মামলা করলে গত বুধবার হাফিজ আহমেদকে অপরিশোধিত দেন মোহরের তিন লাখ ৮০ হাজার টাকা দেয়ার নির্দেশ দেয় আদালত। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন হাফিজ আহমেদ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রূপালী আক্তার ময়মনসিংহ নগরীর সারদা ঘোষ রোড এলাকায় ডাক্তার দেখাতে আসলে আগে থেকেই উৎ পেতে থাকা হাফিজ রূপালীর শরীরে এসিড নিক্ষেপ করেন। এসিডে রূপালীর মুখ-মণ্ডলসহ শরীরের বেশির ভাগ এবং সঙ্গে থাকা চার বছরের শিশুপুত্র রোহানের শরীর ঝলসে যায়।

ময়মনসিংহের অতিরিক্ত এসপি(সদর সার্কেল) আল আমিন জানান, ঘটনাস্থল থেকে সাবেক স্বামী হাফিজকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম