Alexa সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীরাই হতে পারেন কৃষকলীগের সভাপতি

সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীরাই হতে পারেন কৃষকলীগের সভাপতি

জাফর আহমেদ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২২:২৩ ৫ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২৬ ৬ নভেম্বর ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

কৃষকলীগের গত কয়েক দশকের কর্মকাণ্ডের মূল্যায়ন করেই দলের দুই শীর্ষ পদের দায়িত্ব দেয়া হবে। এছাড়া গঠনতন্ত্রে কোনো বয়স উল্লেখ না থাকলেও ৫৫ বছরের বেশি কাউকে দলের মূল দায়িত্ব দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের এক শীর্ষ নেতা

জানা গেছে, বর্তমান কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক এবং কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীদের মধ্যে থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা হতে পারে। এসব পদের জন্য আলোচনায় আছেন কৃষকলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ সমীর চন্দ, সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষিবিদ বিশ্বনাথ সরকার বিটু, কৃষিবিদ সাখাওয়াত হোসেন সুইট, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিপ্লব, আবুল হোসেন, গাজী জসিম উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান আতিক।

কৃষকলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ সমীর চন্দ্র বলেন, আগামীতে কৃষকলীগের নেতৃত্ব দেয়ার জন্য সভানেত্রী যাকে ভালো মনে করবেন তাকে দায়িত্ব দেবেন। সে অনুযায়ী কৃষকলীগের যারা সভাপতি পদ প্রত্যাশী তাদের মধ্যে থেকে দায়িত্ব না পাওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি।
 
দলটির সভাপতি পদ প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন- কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মো. ওমর ফারুক, বীর মুক্তিযোদ্ধা শরীফ আশরাফ হোসেন, কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশা, শেখ মো. জাহাঙ্গীর আলম, বাবু ছবি বিশ্বাস, আকবর আলী চৌধুরী, হারুন-অর-রশীদ হাওলাদার।

এদিকে কৃষকলীগের বর্তমান সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামসুল হক রেজার বিরুদ্ধে সংগঠনকে সচল করতে না পারাসহ রয়েছে বেশ কিছু অভিযোগ। 

দেশের কৃষির উন্নয়ন ও কৃষকের স্বার্থ রক্ষার জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ১৯ এপ্রিল কৃষকলীগ প্রতিষ্ঠা করেন। ৬ নভেম্বর বুধবার সকাল ১১টায় শহীদ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কৃষকলীগের ১০ম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। পরে দ্বিতীয় সেশন বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে নেতাকর্মীদের নাম ঘোষণা করা হবে।

কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিপ্লব বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সোনার বাংলাদেশ গড়ার জন্য যারা কৃষকের জন্য কাজ করেন তাদেরকে নেতৃত্বে আনবেন দলের সভানেত্রী। তিনি কৃষকলীগকে আরো শক্তিশালী ও গতিশীল করতে যাদের ভালো মনে করবেন তাদের হাতে নেতৃত্ব তুলে দেবেন।

কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান আতিক বলেন, যারা সৎ, যোগ্য, নিষ্ঠাবান ও ত্যাগী কৃষি ব্যক্তিত্ব তাদেরকে সংগঠনের দায়িত্ব দেয়া হলে কৃষকলীগ আরো গতিশীল হবে।

এদিকে সংগঠনটির পাঁচটি সম্পাদক পদ পরিবর্তনসহ গঠনতন্ত্রে বেশ কিছু পরিবর্তন করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। সেগুলো হলো কৃষকলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ছিল ১১১ জন। কিন্তু তা সংশোধন করে ১৫১ জন করার প্রস্তাব করা রয়েছে। তার মধ্যে সহ-সভাপতি ১৬ থেকে ২১ জন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ৩ থেকে ৫ এবং সাংগঠনিক সম্পাদক ৭ থেকে ৯ জন করার প্রস্তাব করা রয়েছে। 

এছাড়া মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক, ক্রীড়া ও যুব বিষয়ক সম্পাদক, কৃষি উপকরণ বিষয়ক সম্পাদক, কৃষি পণ্য পরিবহন বিষয়ক সম্পাদক, কৃষি শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদকসহ পাঁচটি সম্পাদক পদ নতুন যোগ করা হয়েছে। কয়েকটি পদের নামও পরিবর্তন করার প্রস্তাব রয়েছে। সমবায় সম্পাদকের স্থলে কৃষি সমবায়, কুটির শিল্পের স্থলে কৃষি শিল্প বাণিজ্য, মৎস্য ও পশুর স্থলে মৎস্য ও প্রাণী, কৃষি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির স্থলে কৃষি বিজ্ঞান ও আইসিটি সম্পাদক, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদকের স্থলে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক করার প্রস্তাব করা রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ