Alexa সাতটি জিনিস ভাগাভাগি করলেই বিপদ 

সাতটি জিনিস ভাগাভাগি করলেই বিপদ 

জান্নাতুল মাওয়া সুইটি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৪৪ ২২ মে ২০১৯   আপডেট: ১৪:৪৬ ২২ মে ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

‘শেয়ারিং ইজ কেয়ারিং’ কথাটির সঙ্গে সবাই পরিচিত! হরহামেশাই দৈনন্দিন জীবনে প্রিয় বন্ধুর সঙ্গে আমরা বিভিন্ন জিনিস ভাগাভাগি করে থাকি। এই ধরুন, স্কুল, কলেজ এমনকি বিশ্ববিদ্যালয় ও অফিসেও প্রিয় বন্ধুর সঙ্গে খাবার ভাগাভাগি থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রসাধনী ভাগাভাগি করে থাকি। অনেক সময় তো একে অন্যের পোশাকও পরে ফেলি! তবে বন্ধুত্ব যতই গাঢ় হোক না কেন ৭টি জিনিস কখনো ভাগাভাগি করা উচিত নয়। এতে আপনি যেমন বিপদে পড়বেন ঠিক তেমনি আপনার বন্ধুও বিপদগ্রস্থ হবে। জেনে নিন কোন ৭টি জিনিস-

১. ইয়ারফোন
একজনের ইয়ারফোন আরেকজন কানে নিয়ে গান শুনবে এতে আবার বিপদ কীসের? এমন প্রশ্ন মনে হতেই পারে। কিন্তু আপনি জানেন কি, প্রত্যেকের কানের মধ্যেই ক্ষতিকর কিছু ব্যাকটেরিয়া থাকে। কানে ময়লা জমে এসব ব্যাকটেরিয়ার জন্ম হয়। এ কারণে ইয়ারফোন অদলবদলের ফলে আপনার কানে ইনফেকশন হতে পারে।

২. লিপস্টিক, লিপ বাম বা চ্যাপস্টিক
মেয়েরা লিপস্টিক তার বন্ধুদের সঙ্গে হরহামেশাই ভাগাভাগি করে থাকে। তবে সাবধান! অন্য কারো লিপস্টিকও যেমন ব্যবহার করা উচিত নয় তেমনি আপনার লিপস্টিকও কাউকে ব্যবহার করতে দিবেন না যেন। এতে করে আপনি ‘হারপিস’ ভাইরাসের শিকার হতে পারেন।

৩. চিরুনি
এই জিনিসটি মেয়েদের ভ্যানিটি ব্যাগেই থাকে। তবে অনেক সময় দেখা যায়, অফিসের কলিগ বা কলেজের বন্ধুর চিরুনির প্রয়োজন হলো আর তখন আপনি নিজের চিরুনিটি এগিয়ে দিলেন। এতে করে তার মাথার স্ক্যাল্পে জন্মানো ব্যাকটেরিয়া চিরুনিতে চলে আসতে পারে। পরবর্তীতে আপনি তা ব্যবহার করলে স্ক্যাল্পের বিভিন্ন রোগে ভুগতে হবে। অবশ্যই মনে রাখবেন সপ্তাহে অন্তত দু’দিন চিরুনি পরিষ্কার করা উচিত।

৪. তোয়ালে
পরিবারের সকলের সঙ্গেই তোয়ালে অনেক সময় ভাগাভাগি করা হয়ে থাকে। তবে এটি মোটেও ঠিক নয়। কারণ প্রত্যের শরীরের ঘাম লেগে তোয়ালেতে ব্যাকটেরিয়া জমে। এছাড়াও তোয়ালে সবসময়ই ভেজা ভেজা থাকে যার ফলে ব্যাকটেরিয়ার জন্মাতে সুবিধা হয়। পরবর্তীতে আপনি যখন এমন তোয়ালে ব্যবহার করবেন আপনার ত্বকে বিভিন্ন সংক্রমণ হতে পারে।

৫. সাবান
এক সাবান তো পরিবারের সবাই ব্যবহার করে! এমন হলে চলবে না। সত্যিই তাই, কারণ সাবান আপনাকে সুরক্ষিত করলেও বিভিন্ন মানুষের সংস্পর্ষে বার সাবানে ব্যাকটেরিয়া জন্মায়। এজন্যই গোসলখানায় বার সাবানের বিকল্প হিসেবে বডি ওয়াশ বা লিকুইড সোপ ব্যবহার করুন।

৬. কাজল
শুধু কাজ নয় বরং আইলাইনার, মাশকারা এমনকি ফেইস পাউডারও শেয়ার করা উচিত নয়। এমনকি আপনি যখন পার্লারে সাজতে যাবেন তখন অবশ্যই নিজস্বতা বজায় রেখে পরিষ্কার প্রসাধনী ব্যবহার করুন।

৭. বাথ স্পঞ্জ
পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও বাথ স্পঞ্জ ব্যবহার করা উচিত নয়। এর কারণে ত্বকে র‌্যাশ ও অ্যালার্জি  হতে পারে।  

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস

Best Electronics
Best Electronics