সাংবাদিকদের দেরিতে বেঁচে গেলেন ক্রিকেটাররা
Best Electronics

সাংবাদিকদের দেরিতে বেঁচে গেলেন ক্রিকেটাররা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:৪৯ ১৫ মার্চ ২০১৯   আপডেট: ১৪:৪৫ ১৫ মার্চ ২০১৯

ডেইলি বাংলাদেশ

ডেইলি বাংলাদেশ

ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে যোগ দিতে দেরি করেন বাংলাদেশ দলের ভারপ্রাপ্ত টেস্ট অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এতে জুম্মার নামাজ পড়তে যেতে দেরি হয় ক্রিকেটারদের। আর তাতেই ক্রাইস্টচার্চে আল নূর মসজিদে বন্দুকধারীর হামলা থেকে বেঁচে যান বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়েরা।

শুক্রবার স্থানীয় সময় দুপুর পৌনে ২টার দিকে আল নূর মসজিদ ও লিনউড মসজিদে এই হামলার ঘটনা ঘটে। অল্পের জন্য রক্ষা পান টাইগাররা। বর্তমানে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা সবাই নিরাপদে আছেন। তারা সবাই হোটেলে পৌঁছেছেন। 

নিউজিল্যান্ডে অবস্থানরত যমুনা টেলিভিশনের প্রতিনিধি এহতেশাম সবুজ ডেইলি বাংলাদেশকে ফেসবুকে জানিয়েছেন, জুম্মার নামাজ পড়তে যাওয়ার আগে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে যোগ দিয়েছিলেন বাংলাদেশ দলের ভারপ্রাপ্ত টেস্ট অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছিলেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের পর প্রশ্নে দেরি হচ্ছিল মসজিদে যাওয়ার প্রস্তুতি।

এক পর্যায়ে রিয়াদ সাংবাদিকদের উপর কিছুটা বিরক্ত হয়ে বলেই ফেলেন, জুম্মার নামাজে যাবো, দেরি হয়ে যাচ্ছে। আপনারা জলদি শেষ করুন।

অনেক দেরিতেই শেষ হয় সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলন। পরে রিয়াদের সঙ্গে জুম্মার নামাজ আদায় করতে মসজিদে রওনা হন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। আল নূর মসজিদের গেটে প্রবেশের সময় ক্রিকেটাররা দেখতে পান বিভীষিকাময় এক দৃশ্য।

ক্রিকেটাররা কেই বাসে, কেউ বাস থেকে নেমেছেন মাত্র। একেবারে গেটের কাছেই দেখতে পান রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে অনেকে। কেউ কেউ দৌড়াতে দৌড়াতে বেরিয়ে আসছেন রক্তাক্ত অবস্থায়। 

দেশীয় ও স্থানীয় গণমাধ্যমকে তামিম ইকবাল জানিয়েছেন, তিনি রাস্তায় মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেছেন। মুশফিকুর রহিম আতঙ্কিত হয়ে রীতিমতো দৌড়াতে শুরু করেন। ক্রিকেটাররা ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

সাংবাদিক এহতেশাম সবুজ আরো জানান, সংবাদ সম্মেলনে কিছুটা দেরি হওয়ার কারণেই হয়তো ক্রিকেটাররা প্রাণে বেঁচে গেলেন। কারণ দুই থেকে পাঁচ মিনিট আগে তারা মসজিদে প্রবেশ করলেই হয়তো অনেক বড় বিপদ হয়ে যেতো।

ডেইলি বাংলাদেশ/এলকে

Best Electronics