সভাপতি হতে জোরপূর্বক স্বাক্ষর, রেজুলেশন বই ছিনতাই

সভাপতি হতে জোরপূর্বক স্বাক্ষর, রেজুলেশন বই ছিনতাই

লালমনিরহাট প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৫৩ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ফাজিল মাদরাসার সভাপতি হতে জোরপূর্বক স্বাক্ষর করে রেজুলেশন বই ছিনিয়ে নেয়ায় অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সাবেক অভিভাবক সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার রাতে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার চলবলা দলগ্রাম একরামিয়া ফাজিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. নুরুজ্জামান এ অভিযোগ দায়ের করেন। 

অভিযুক্ত অভিভাবক সদস্য আনছারুল ইসলাম উপজেলার দক্ষিণ দলগ্রাম এলাকার ছানাউদ্দিনের ছেলে।

প্রতিষ্ঠানটির অভিভাবক সদস্য আনছারুল ইসলাম নিজেকে সভাপতি ঘোষণা করে মাদরাসার যাবতীয় কাগজপত্র কুক্ষিগত করেন। এ নিয়ে মহামান্য হাইকোর্ট পর্যন্ত চলে মামলা মোকদ্দমা।  

গত ৭ জানুয়ারি এডিসি (সার্বিক) রফিকুল ইসলামকে সভাপতি করে নতুন এডহক কমিটি গঠন করা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পড়েন সাবেক কমিটির সদস্য আনছারুল ইসলাম।

নতুন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শনিবার সভা আহবান করেন। সেখানে সাবেক অভিভাবক সদস্য আনছারুল ইসলাম দলবল নিয়ে ওই প্রতিষ্ঠানের রেজুলেশন বই নিতে জোরপূর্বক সবার স্বাক্ষর নিয়ে পুনরায় রেজুলেশন বই নিয়ে চম্পট দেন। 

এ ঘটনায় রোববার রাতে আনছারুল ইসলাম ও তার তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. নুরুজ্জামান।

আনছারুল ইসলাম ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, আগের অধ্যক্ষের কিছু অনিয়মের প্রমাণ থাকায় রেজুলেশন বই অন্যান্য সদস্যরা আমার কাছে জমা দিয়েছেন। জোর করে স্বাক্ষর করে নেইনি।

একরামিয়া ফাজিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. নুরুজ্জামান বলেন, দলবল নিয়ে আনছারুল সভায় প্রবেশ করে জোরপূর্বক স্বাক্ষর নিয়ে এডহক কমিটির সভাপতিকে নিয়ে বিদ্রুপ করে চলে যান। জীবন বাঁচাতে সবাই স্বাক্ষর করেছি। এ নিয়ে থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানের কাগজপত্র পাইনি।

কালীগঞ্জ থানার ওসি সাজ্জাত হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মাদরাসার সভাপতি এডিসি (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির সভায় আনছারুল নামে একজন রেজুলেশন বইতে জোরপূর্বক সবার স্বাক্ষর নিয়ে বইটি ছিনিয়ে নেন বলে শুনেছি। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে