সপ্তাহের যে তিনদিন শারীরিক সম্পর্কে ঘটবে মহাবিপদ!

সপ্তাহের যে তিনদিন শারীরিক সম্পর্কে ঘটবে মহাবিপদ!

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩৪ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৫:৫৯ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

দম্পতি

দম্পতি

স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক দাম্পত্য জীবনকে সুন্দর ও সুখকর করে। এছাড়াও শারীরিক সম্পর্ক স্বাস্থ্যের জন্যও খুব উপকারী। এর ফলে শারীরিক নানান ব্যাধি থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব হয়। শুধু তাই নয়, শারীরিক সম্পর্ক মানসিক শান্তিও প্রদান করে।

এর ফলে শারীরিক স্ট্রেস কমে এবং আরেকজন মানুষের সঙ্গে অনুভূতির আদান প্রদান হয়। অবাক করা তথ্য হলেও, শারীরিক সম্পর্ক হৃৎপিণ্ডের জন্য খুবই ভালো একটি ব্যায়াম। এই সম্পর্কের ফলে অনেকটা ক্যালোরি ক্ষয় হয়। এছাড়া এ সময়ে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আসে।

সামাজিক ও ধর্মীয়ভাবে স্বামী-স্ত্রীর শারীরিক সম্পর্ক বৈধ। তাই বলে প্রতিদিনই শারীরিক সম্পর্ক মোটেও সঠিক নয়। এতে সুখের বদলে দুঃখের আশঙ্কাই বাড়ে। কিন্তু সঠিক তথ্য না জানার কারণে অনেকেই নিজের অজান্তে বিপদ ডেকে আনেন। ভারতীয় শাস্ত্রমতে, গর্ভধারণ বা শারীরিক সম্পর্কের জন্য সপ্তাহের সব দিন সঠিক নয়।

সূত্র জানায়, সপ্তাহে বিশেষ তিনদিন শারীরিক সম্পর্ক হলে জীবনে চরম বিপদ ঘনিয়ে আসতে পারে। তাই সপ্তাহের এই তিনদিন ভুলেও শারীরিক সম্পর্ক করবেন না। নিশ্চয় জানতে ইচ্ছে করছে, কেন এই বাধা? চলুন তবে জেনে নেয়া যাক বিস্তারিত-

শনিবার

সপ্তাহের প্রথম দিন শনিবার। এ দিন শারীরিক সম্পর্কে সন্তানের ওপর শনিদেবের কুপ্রকোপ পড়ে। সন্তানের ভেতরে নেতিবাচক চিন্তা-ভাবনা দেখা দিতে পারে। এছাড়া জীবনে নানা দুর্ঘটনার সম্মুখীন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

রোববার

সপ্তাহের দ্বিতীয় দিন রোববার। কোন কিছুর সূচনার জন্য রোববারকে ‘অশুভ দিন’ বলে মানা হয়। এ দিন শারীরিক সম্পর্কে সন্তানের ওপর রবির অশুভ প্রভাব পড়ে। শিশু অতিরিক্ত রাগী হয়ে উঠতে পারে। এছাড়া হৃদরোগ সংক্রান্ত কোনো অসুখে ভোগার আশঙ্কাও রয়েছে।

মঙ্গলবার

সপ্তাহের চতুর্থ দিন মঙ্গলবার। এ দিন শারীরিক সম্পর্কে মঙ্গলের উপর কুপ্রভাব পড়ে। যার ফলে ভবিষ্যতে সন্তানের প্রতি নিষ্ঠুর নিয়তি দেখা দিতে পারে। সন্তান অসামাজিক কাজে যুক্ত হয়ে পড়ার আশঙ্কাও থেকে যায়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ