শিক্ষামন্ত্রীর প্রতি বাংলাদেশী বিজ্ঞানীর খোলাচিঠি

শিক্ষামন্ত্রীর প্রতি বাংলাদেশী বিজ্ঞানীর খোলাচিঠি

জি এম ইমরান হোসেন, শাবি

প্রকাশিত: ২২:১৩ ১১ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২২:১৩ ১১ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির প্রতি এক খোলা চিঠি লিখেছেন দশ মিনিটে ক্যান্সার সনাক্তের উদ্ভাবক বাংলাদেশী বিজ্ঞানী ড. আবু আলী ইবনে সিনা।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) খ্যাতিমান এ শিক্ষক ডা. দীপু মনিকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, “দীপু আপা পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকা অবস্থায় অত্যন্ত দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন এবং সমুদ্রবিজয়ের অন্যতম প্রধান কান্ডারী ছিলেন। একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে আশা করি ওনার হাত ধরে সব পর্যায়ের শিক্ষার অব্যবস্থাপনা দূর হবে। বিশেষ করে প্রশ্ন ফাঁসের বিরুদ্ধে শক্ত ব্যবস্থা নিবেন এই আশা রাখি।

একজন গবেষক হিসেবে চাই, উনি বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণার জন্য বড় ধরণের ফান্ড এর ঘোষণা দিবেন। আমাদের দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আন্তর্জাতিক মানে নিয়ে যেতে ব্যাপকভাবে গবেষণার সুযোগ তৈরীর কোন বিকল্প নেই। গবেষণার মাধ্যমে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আন্তর্জাতিক মান যেমন বাড়বে সেই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রশিক্ষকরা গবেষণায় মনোযোগী হলে রাজনীতির পরিমান কমে আসবে। সেই সাথে উচ্চতর গবেষণার সুযোগ তৈরী হলে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নেপাল, ভুটান এর মত দেশগুলোর শিক্ষার্থীদের তীর্থস্থান হতে পারে যেটি আমাদের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারবে। নিজের এলাকার সংসদ সদস্য হিসেবে দীপু আপাকে এতটুকু বলতে পারি যে, গবেষণার ফান্ড বিষয়ক যেকোন ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে সহযোগিতার হাত সবসময় উন্মুক্ত থাকবে।

সব শেষে চাঁদপুরের সন্তান হিসেবে চাই, উনি অতি সত্তর চাঁদপুরে একটি সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় করবেন। শাবিপ্রবির ছাত্র ও শিক্ষক হিসেবে অনেক বছর সিলেটে ছিলাম এবং একটি বিশ্ববিদ্যালয় কিভাবে একটি জনপদে আমূল পরিবর্তন নিয়ে আসতে পারে আমি তার প্রত্যক্ষদর্শী। অতএব চাঁদপুরকে যদি আধুনিক বাংলাদেশের অংশ করতে হয়, তাহলে দ্রুততার সঙ্গে একটি বিশ্ববিদ্যালয় তৈরির ব্যবস্থা করতে হবে। দেশের অন্যান্য অনেক জেলার তুলনায় চাঁদপুর দিন দিন অনেক পিছিয়ে যাচ্ছে। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ই পারে ইলিশের জেলা চাঁদপুরের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে এবং চাঁদপুরকে আধুনিক বাংলাদেশের প্রাণকেন্দ্রগুলোর একটিতে পরিণত করতে।”

উল্লেখ্য, ড. আবু আলী ইবনে সিনা শাবিপ্রবির বায়োকেমিস্ট্রি এ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগে কিছুদিন শিক্ষাকতা শেষে বর্তমানে অস্ট্রেলীয়ার কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক ও গবেষক হিসেবে কাজ করছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ