শিকলে বেঁধে নির্যাতন করা সেই শিশুকে গোপনে সরিয়ে দেয়া হলো!

শিকলে বেঁধে নির্যাতন করা সেই শিশুকে গোপনে সরিয়ে দেয়া হলো!

বরিশাল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:১৪ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

বরিশাল নগরের রূপাতলী এলাকায় শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের বালক শাখায় নির্যাতনের শিকার শিশু হযরতকে রাতের আঁধারে অন্যত্র সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

ওই পুনর্বাসন কেন্দ্রের দায়িত্বরত কেইস ম্যানেজার মো. আলামিন বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, হযরতকে সরিয়ে দেয়া হয়নি। গত ৪ ফেব্রয়ারি রাতে তাকে তার পরিবারের সদস্যরা নিতে আসলে অফিসিয়াল নিয়ম অনুযায়ী স্যার বাসুদেব দেবনাথ তাদের তুলে দেন।

এদিকে অভিযোগ উঠেছে ,জাতীয় দৈনিক, বেসরকারি টেলিভিশনসহ স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোতে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলে নিজেকে বাঁচাতে প্রকল্প উপ-পরিচালক বাসুদেব দেবনাথ নির্যাতনের শিকার শিশু হযরতকে রাতের আঁধারে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে দেয়।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে প্রকল্প উপ-পরিচালক বাসুদেব দেবনাথ বলেন, অফিসিয়াল ভাবেই হযরতকে তার পরিবারের কাছে দেয়া হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে কোনো উওর না দিয়ে তিনি ফোনটি কেটে দেন। 

শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে বালক শাখায় দুই শিশুকে শিকলে বেঁধে নির্যাতন ও একই সঙ্গে কেন্দ্রের শিশুদের দিয়ে ভারী কাজ করানোর ভিডিও ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সর্বত্র তোলপাড় শুরু হয়।

এ ঘটনায় বরিশাল জেলা সমাজসেবা অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মো. শহিদুল ইসলামকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি করা হয়। এছাড়া বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসনের পক্ষে পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

এ ব্যাপারে সমাজসেবা অধিদফতরের বিভাগীয় পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) শাহপাড় পারভীন বলেন, আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক শিশু হযরতকে তার পরিবারের কাছে দেয়ার কথা ছিল। একটু দিতে দেরি হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, শিশু নির্যাতনের বিষয়টি সবারই জানা। তাই বিষয়টি গোপন করার কোনো অবকাশ নেই। গঠিত তদন্ত কমিটি শিগগিরই তাদের প্রতিবেদন জমা দেবে। তদন্তে প্রমাাণিত হলে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ