‘শালবন বিহারের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি নিয়ে পরিকল্পনা রয়েছে’

‘শালবন বিহারের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি নিয়ে পরিকল্পনা রয়েছে’

কুমিল্লা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৪:২১ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

শালবন বিহার ও ময়নামতি জাদুঘর

শালবন বিহার ও ময়নামতি জাদুঘর

প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের ডিজি মো. হান্নান মিয়া বলেছেন, শালবন বিহার এখনো আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পায়নি। এ বিষয়ে পরিকল্পনা রয়েছে। শুক্রবার কুমিল্লার ময়নামতির শালবন বিহার ও ময়নামতি জাদুঘর পরিদর্শন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

অতিরিক্ত সচিব মো. হান্নান মিয়া বলেন, সারা দেশের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলোর দিকে নজর দিতে গিয়ে শালবন বিহারের মতো দর্শনীয় স্থান অবহেলিত রয়ে যাচ্ছে। এসব প্রত্নতাত্ত্বিক স্থানের রাষ্ট্রীয় অগ্রাধিকার ও ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে ব্যাপক বিনিয়োগ প্রয়োজন।

তিনি আরো বলেন, অর্থনৈতিক সংকট সংকট মিটিয়ে কুমিল্লার লতিকোট মুড়া, ইটাখোলা মুড়া, রূপবান মুড়া, রাণীর কুটির, লাকসামের নবাব ফয়জুন্নেসা চৌধুরাণীর বাড়ি সংরক্ষণ ও সংস্কারে উদ্যোগ নেয়া হবে। এছাড়া বিখ্যাত সংগীতজ্ঞ শচীন দেব বর্মণের বাড়িতে জাদুঘর নির্মাণের আবেদন করা হয়েছে। সেটি বাস্তবায়নে কাজ চলছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের সাবেক আঞ্চলিক পরিচালক মো. মোশারেফ হোসেন, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক ড. মো. আতাউর রহমান, প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের উপ-পরিচালক মো. আমিরুজ্জামান, ঢাকা বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক রাখী রায়, সহকারী স্থপতি খন্দকার মাহফুজ আলম, সহকারী প্রত্নতাত্ত্বিক প্রকৌশলী মো. ফিরোজ আহমেদ, ময়নামতি জাদুঘর ও শালবন বিহারের কাস্টোডিয়ান মো. হাফিজুর রহমান প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর