শরীয়তপুরে করোনা প্রতিরোধে মাঠে উপজেলা প্রশাসন

শরীয়তপুরে করোনা প্রতিরোধে মাঠে উপজেলা প্রশাসন

শরীয়তপুর প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৪৮ ১১ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১২:৫৩ ১১ জুলাই ২০২০

ডিসির নেতৃত্বে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাঠে কাজ করছেন উপজেলা প্রশাসন।

ডিসির নেতৃত্বে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাঠে কাজ করছেন উপজেলা প্রশাসন।

শরীয়তপুরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ডিসির নেতৃত্বে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাঠে কাজ করছেন উপজেলা প্রশাসন। 

৮ মার্চ দেশে করোনা আক্রান্ত শুরু হওয়ার পর থেকে ডিসি কাজী আবু তাহের এর নেতৃত্বে জেলায় করোনা প্রতিরোধে অবিরাম ছুটে চলেছেন শরীয়তপুর সদরের ইউএনও মো. মাহাবুর রহমান শেখ, ভেদরগঞ্জের ইউএনও তানভীর-আল-নাসীফ, ডামুড্যার ইউএনও মর্তুজা আল-মুঈদ, গোসাইরহাটের ইউএনও মো. আলমগীর হুসাইন, জাজিরার ইউএনও মো. জাহিদুল ইসলাম, নড়িয়ার ইউএনও জয়ন্তী রুপা রায়। 

প্রতিদিন উপজেলার প্রধান প্রধান হাট-বাজার ও শপিংমলগুলোতে নিজেদের হাতে মাইকিং করে করোনা সংক্রমণে জনসচেতনতা বৃদ্ধি, করোনা আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন, অসহায়দের বাড়ি খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করাসহ জেলাকে করোনামুক্ত রাখতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সব চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন উপজেলা প্রশাসন।

লকডাউনে প্রবাসীসহ সাধারণ জনগণকে ঘরে রাখা, ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করা, কোয়ারেন্টাইন ও লকডাউন অমান্যকারীদের ঘরে ফেরানোর কাজ করেন তারা। দেশের এমন পরিস্থিতিতে জনগণের পাশে থেকে সরকারি নির্দেশনা বাস্থবায়নে অগ্রণী ভূমিকা রেখে যাচ্ছেন তারা। 

ডিসি কাজী আবু তাহের বলেন, দেশে করোনাভাইরাস শুরু হওয়ার পর থেকে লকডাউন বাস্থবায়ন, কর্মহীন অসহায়দের বাড়ি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া, আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন করা ও তাদের বাড়িতে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া, চিকিৎসার ব্যবস্থা নিশ্চিত করে আসছি। 

তিনি আরো বলেন, করোনা সংক্রমণে জনসচেতনতা বৃদ্ধি, সরকারি আদেশ অমান্যকারীদের মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে অর্থদণ্ড করা, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করাসহ জেলাকে করোনামুক্ত রাখতে সব ধরণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আর এই কাজে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মাঠে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন উপজেলা প্রশাসন, চিকিৎসক ও পুলিশ প্রশাসন। তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।

ডিসি বলেন, নিম্নআয়ের মানুষের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করা, করোনায় আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন, খাদ্য সামগ্রীসহ সব চেষ্টা করছেন তারা। ত্রাণ নিয়ে ছুটে চলেছেন মানুষের চাহিদা মেটাতে বিভিন্ন জায়গায়। দেশের জন্য কাজ করতে গিয়ে পরিবারের খবরও নিতে পারছেন না অনেকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে