শরণখোলায় প্রাচীন বিদ্যাপীঠ ঘেঁষে স’ মিল! 

শরণখোলায় প্রাচীন বিদ্যাপীঠ ঘেঁষে স’ মিল! 

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩০ ২৯ মে ২০২০   আপডেট: ১৬:৫৯ ২৯ মে ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বাগেরহাটের শরণখোলায় একটি প্রাচীন বিদ্যাপীঠ ও জনবহুল বাজার ঘেঁষে নিষিদ্ধ একটি স’ মিল স্থাপন করতে যাচ্ছেন স্থানীয় এক প্রভাবশালী। 

করাত কল আইন অনুসারে সুন্দরবন সংলগ্ন ১০ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ জনবহুল এলাকায় স-মিল স্থাপন করা পুরোপুরি নিষিদ্ধ। কিন্তু তা মানছেন না ওই প্রভাবশালী। 

রাতারাতি ওই এলাকায় স-মিল স্থাপন করায় বিদ্যাপীঠের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকসহ এলাকার সচেতন মানুষের মাঝে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। 

উপজেলার সাউথখালী ইউপির ব্যবসায়ী মো. সেলিম হাওলাদার তাফালবাড়ী বাজার ও প্রাচীন বিদ্যাপীঠ তাফালবাড়ী স্কুল অ্যান্ড কলেজ ঘেষে রাতের আধাঁরে তড়িঘড়ি করে একটি নাম বিহীন স-মিল স্থাপনের কাজ শুরু করেন। তার এমন অবৈধ কাজে স্থানীয়রা বাধা দিলেও তা উপেক্ষা করে চলছেন ওই ব্যবসায়ী। 

বিদ্যালয়টির কয়েকজন শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা বলেন, স’মিল মালিকরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়না। সুন্দরবনের চার-পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে প্রশাসনের নাকের ডগায় অনেকগুলো করাত কল বসিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তারা সুন্দরীসহ বিভিন্ন ধরনের কাঠ চোরাই করে আসছেন। 

এদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হওয়া সত্বেও তারা থেমে নেই। প্রশাসনের কোনো প্রকার অনুমতি ছাড়াই প্রভাবশালী সেলিম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ঘেষে করাত কল বসানোর কারণে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা চরমভাবে ব্যাহত হবে। 

তবে, এ বিষয়ে সেলিম হাওলাদার বলেন, ইউএনও ব্যতীত বন-বিভাগসহ অন্যরা এখানে স-মিলটি বসানোর জন্য আমাকে অনুমতি দিয়েছেন । 

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসএফ) মো. জয়নাল আবেদীন জানান, সংরক্ষিত বনাঞ্চলের দশ কিলোমিটারের মধ্যে করাত কল বা কোনো প্রকার মিল, কলকারখানা স্থাপন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। 

সম্প্রতি পাঁচটি স’মিলে অভিযান চালিয়ে বন্ধ করে দেয়ার পরও তারা আইন অমান্য করে মিলগুলো কিভাবে চালু করেছে তা খতিয়ে দেখা হবে। এছাড়া সেলিমের বিরুদ্ধে বন আইনে শীঘ্রই মামলা দায়ের করা হবে।

শরণখোলার ইউএনও সরদার মোস্তফা শাহিন জানান, কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আশে পাশে কেউ পরিবেশ বিরোধী কাজে লিপ্ত হলে তার বিরুদ্ধে আইননানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে