Alexa লেবাননে গোপন সুড়ঙ্গ খুঁজতে মাটিতে সেন্সর বসাচ্ছে ইসরায়েল

লেবাননে গোপন সুড়ঙ্গ খুঁজতে মাটিতে সেন্সর বসাচ্ছে ইসরায়েল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:২৭ ২০ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৪:২৮ ২০ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

লেবানন সীমান্তে যেকোনো আন্তঃসীমান্ত সুড়ঙ্গ সনাক্ত করতে মাটির নিচে বৈদ্যুতিক সেন্সর বসাচ্ছে ইসরায়েল। রোববার এ সেন্সর বসানোর কাজ শুরু করার ঘোষণা দিয়েছে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী বলছে, লেবাননের হিজবুল্লাহ গ্রুপের খনন করা কয়েকটি অনুপ্রবেশ সুড়ঙ্গ ধ্বংস করার এক বছর পর এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

গত বছর ইসরায়েলের সীমান্তে পরিচালনা করেছিল অপারেশন নর্দার্ন শিল্ড। এটির উদ্দেশ্য ছিল সীমান্তে লেবানিজ সশস্ত্র দল হিজবুল্লাহর খোঁড়া সুড়ঙ্গ চিহ্নিত ও ধ্বংস করা। এসব সুড়ঙ্গ ব্যবহার করে সশস্ত্র দলটি অনেক দিন ধরেই ইসরায়েলের অভ্যন্তরে হামলা চালিয়ে আসছিল। নর্দার্ন শিল্ড অপারেশন চলাকালীন অন্তত ছয়টি এমন গোপন সুরঙ্গ ধ্বংস করে ইসরায়েল।

হিজবুল্লাহর সুড়ঙ্গ খনন রোধে নেয়া নতুন এক পরিকল্পনা ঘোষণা করেন ইসরায়েলি ডিফেন্স ফোর্স বা আইডিএফের মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার-জেনারেল হিদাই জিলবারম্যান। তিনি জানান, এই সেন্সর স্থাপিত হলে সীমান্ত এলাকার সকল শব্দই বিশ্লেষণ করা সম্ভব হবে। ফলে নতুন করে কোনো সুড়ঙ্গ খোলা হলে তা সঙ্গে সঙ্গে ইসরায়েলি বাহিনীকে সতর্ক করে দিতে পারবে। যদিও রোববার শুরু হওয়া এই সেন্সর বসানোর কাজ শেষ হতে কয়েক মাস সময় লাগবে।

এছাড়া গোয়েন্দা তথ্য, বাজেট ও পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে এ বছরের পুরো সময়টাই এর পেছনে ব্যয় হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে এ জন্য কোনো অতিরিক্ত সেনা মোতায়েনের প্রয়োজন পড়বে না বলেও নিশ্চিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে লেবাননের সঙ্গে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে ইসরায়েল। দু’পক্ষের মাসব্যাপী যুদ্ধে ১ হাজারের বেশি লেবানিজের পাশাপাশি ১৫৯ জন ইসরায়েলি সেনা নিহত হয়। এরপর থেকেই প্রতিবেশী দেশ দুটির মধ্যে তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত বছরের শেষের দিকেই লেবানন সীমান্তে বাড়তি সেনা সমাবেশের ঘোষণা দেয় ইসরায়েল। নতুন বছরের শুরুতে ইরান-যুক্তরাষ্ট্র সংঘাতের মধ্যে সেই উত্তেজনা আবারো নতুন মাত্রা পেয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ