লবণ নিতে গিয়ে বজ্রপাতে গেল তিন শ্রমিকের প্রাণ

লবণ নিতে গিয়ে বজ্রপাতে গেল তিন শ্রমিকের প্রাণ

কক্সবাজার প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:২৫ ৪ এপ্রিল ২০২০   আপডেট: ২০:৪২ ৪ এপ্রিল ২০২০

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলায় বজ্রপাতে তিন লবণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার বিকেল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঝড়ে বিপুল পরিমাণ লবণ ও কাঁচা ঘরবাড়ি এবং সেমিপাকা বাড়ির চালা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

নিহতরা হলেন, মহেশখালীর হোয়ানক পশ্চিম বানিয়াকাটা এলাকার নেছার আহম্মদের ছেলে মানিক। মানিক মৈন্নাঘোনা লবণ মাঠে কাজ করা অবস্থায় বজ্রাপাতে তার মৃত্যু হয়।

অপরজন পেকুয়া উপজেলার টৈটং ধৈনিনিয়া কাটা এলাকার ছৈয়দুর রহমানের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি হোয়ানকের আন্নুঘোনায় লবণ মাঠে কাজ করা অবস্থায় বজ্রপাতে মারা যান। 

এছাড়া বড়মহেশখালী ইউপির জাগিরাঘোনার এলাকার জালাল আহমদের ছেলে মো. ফারুক কালাপাইন্না ঘোনায় বজ্রপাতে মারা যান।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে হোয়ানক ইউপি সদস্য নুরুল কবির জানান, তারা তিনজনই লবণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। কালবৈশাখী ঝড় শুরুর সঙ্গে সঙ্গে মাঠের লবণ নিতে গিয়ে বজ্রপাতের শিকার হন তারা। এ সময় ঝড়ে ও বৃষ্টির কারণে মাঠে উৎপাদিত লবণের বেশ ক্ষতি হয়েছে। ভেসে গেছে মাঠের লবণও।

মহেশখালী ইউএনও মো. জামিরুল ইসলাম বলেন, খবর নিয়ে জেনেছি কালবৈশাখীর তাণ্ডবে উপজেলার তারবাড়ী, ধলঘাটা, কালামারছড়া, হোয়ানক, বড়মহেশখালী, কুতুবজোম ও পৌরসভার লবণ চাষিদের মাঠের লবণ বৃষ্টির পানিতে ভেসে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। নিহতদের পরিবারে সরকারি সহায়তা পাঠানো হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম/এসএএম