রেফারিকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালেন সাবেক রুশ অধিনায়ক

রেফারিকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালেন সাবেক রুশ অধিনায়ক

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:২২ ১২ আগস্ট ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ফুটবল খেলা পরিচালনার সময় সব সিদ্ধান্ত নেয়ার একমাত্র ক্ষমতা থাকে রেফারির। ফলে রেফারির সিদ্ধান্ত অনেক সময় কোনো কোনো দলের অপছন্দের কাতারে পরে যায়। তবুও সিদ্ধান্ত মেনেই খেলে থাকেন ফুটবলাররা। অবশ্য রাশিয়ার সাবেক অধিনায়ক রোমান শিরোকোভ এসবের ধার ধারেননি। রেফারির সিদ্ধান্ত পছন্দ না হওয়ায় মাঠেই তাকে পেটাতে শুরু করেন তিনি, পাঠান হাসপাতালে। 

রাশিয়া জাতীয় দলের পাশাপাশি জেনিথ সেইন্ট পিটসবার্গের অধিনায়ক হিসেবেও দীর্ঘদিন খেলেছেন রোমান। সোমবার রাশিয়ার অ্যামেচার লিগ মস্কো সেলিব্রিটি কাপ টুর্নামেন্টে খেলছিলেন তিনি। কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচ চলাকালীন প্রতিপক্ষের ডি বক্সে ফাউলের শিকার হন এই ফুটবলার। তখন থেকেই পেনাল্টির দাবিতে রেফারির সঙ্গে তর্ক শুরু করেন রোমান। 

তবে রোমানের দাবি আমলে নেননি রেফারি নিকিতা দানচেঙ্কো। ক্রমাগত উত্যক্ত করতে থাকায় এক পর্যায়ে রোমানকে লাল কার্ড দেখান তিনি। এতে মেজাজ হারিয়ে নিকিতার উপর চড়াও হন সাবেক রুশ অধিনায়ক। 

আক্রমণের শুরুতে রেফারির মুখে ঘুষি মেরে তাকে মাটিতে ফেলে দেন দেশের জার্সি গায়ে ৫৭ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা রোমান। সেই অবস্থাতেই রেফারির বুক ও পেটে সমানে লাথি মারতে থাকেন তিনি। বাকি ফুটবলাররা এগিয়ে এসে রোমানকে সরিয়ে নিয়ে যান। 

তবে আক্রমণ এতটাই গুরুতর ছিল যে নিকিতা দানচেঙ্কোকে হাসপাতালের এমার্জেন্সি বিভাগে রাত কাটাতে হয়। বাম চোখে গুরুতর আঘাত পেয়েছেন তিনি। এই অবস্থার পর ম্যাচটি বাতিল করে দেয়া হয়। 

টুর্নামেন্টটি রাশিয়ান ফুটবল ইউনিয়ন কিংবা মস্কো ফুটবল ফেডারেশনের সঙ্গে সম্পর্কিত না হওয়ায় বড়সড় শাস্তির হাত থেকে রেহাই পেতে পারেন রোমান। কিন্তু পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে ক্রিমিনাল প্রসিকিউশন হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। 

ঘটনার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দুঃখ প্রকাশ করেছেন রোমান শিরোকোভ। তিনি লিখেছেন, ‘নিকিতার সঙ্গে আমি যে অসঙ্গত কাজটা করেছি তার জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখপ্রকাশ করছি। পেনাল্টি না দেয়া কিংবা লাল কার্ড দেখানো কখনোই রেফারির গায়ে হাত তোলার কোনো কারণ হতে পারে না। আশা করি শিগগিরই নিকিতা নিজের কাজে ফিরবেন।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল