রানের পাহাড় গড়ে চা বিরতিতে বাংলাদেশ

রানের পাহাড় গড়ে চা বিরতিতে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:২৩ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের একমাত্র টেস্টে রানের পাহাড় গড়েছে বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ইনিংসে মুমিনুল-মুশফিকের শতকে এরইমধ্যে ৪০০ পেরিয়েছে বাংলাদেশের সংগ্রহ। 

৫ উইকেটে ৪৪২ রানে চা বিরতিতে গেছে টাইগাররা। এরইমধ্যে ১৭৭ রানের লিড নিয়েছে টাইগারররা। ২৩৯ বলে ১৪৩ রানে ব্যাট করছেন মুশফিক। অপরপ্রান্তে ৩১ বলে ৯ রানে অপরাজিত আছেন লিটন দাস। 

ব্যক্তিগত ৫৫ রান নিয়ে মুমিনুল ও মুশফিক ২০ রানে অপরাজিত থেকে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেন। শুরু থেকেই দেখে খেলতে থাকেন মুমিনুল। ১৫৬ বলে ক্যারিয়ারের নবম সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল ১২টি চারের মার।

সেঞ্চুরিটি মুমিনুলের জন্য বড় একটি চাপ কমিয়ে দিয়েছে বললেও অত্যুক্তি হবে না। কারণ টাইগারদের অধিনায়কত্বের ভার নেয়ার পর থেকেই হাসছিলো না তার ব্যাট। এমনকি শেষ কয়েকটি ইনিংসে কোনো ফিফটির দেখাও পাননি তিনি। সেখান থেকে এমন সেঞ্চুরি নিঃসন্দেহে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে।

জিম্বাবুয়ের প্রথম ইনিংস থেকে ২৫ রানে পিছিয়ে থেকে এদিন মাঠে নামে টাইগাররা। তবে আধঘণ্টা না যেতেই জিম্বাবুয়ের স্কোর ছাড়িয়ে লিড নেয় বাংলাদেশ। ৩ উইকেটে ৩৫১ রান নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় টাইগাররা। 

মধ্যাহ্ন বিরতির পরপরই টেস্ট ক্যারিয়ারের সপ্তম শতক তুলে নেন মি. ডিপেন্ডেবল। মাত্র ১ রানের জন্য শতকের অপেক্ষা নিয়ে লাঞ্চে গিয়েছিলেন মুশফিক। বিরতি থেকে ফিরে তিন অংকের ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছাতে সময় নেন মাত্র ৭ বল। এন্দোলভুর বলে লং অন দারুন এক বাউন্ডারির মেরে শতক পূর্ণ করেন মুশফিক। 

মুশফিক-মুমিনুলের ব্যাটে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে যেতে থাকে বাংলাদেশের রান। নিজেদের ইতিহাসে চতুর্থ ‍উইকেট জুটিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২২ রান তুলে বিচ্ছিন্ন হন তারা। দলীয় ৩৯৪ রানের মাথায় এন্দোলভুর বলে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক ‍মুমিনুল। ২৩৪ বলে ১৩২ রান করেন তিনি। 

এরপর নতুন ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিথুনকে সঙ্গে নিয়ে রানের গতি অব্যাহত রাখেন মুশফিক। ওয়ানডে স্টাইলে খেলা মিথুন বিদায় নেন দলীয় ৪২১ রানে। ২১ বলে ১৭ রান করে এন্দোলভুর শিকারে পরিণত হন মিথুন। মুশফিকের সঙ্গে নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে যোগ দিয়েছেন লিটন দাস। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এম