Alexa ‘রাজবাড়ী-ভাঙ্গা রেল যোগাযোগ মুজিববর্ষের উপহার’

‘রাজবাড়ী-ভাঙ্গা রেল যোগাযোগ মুজিববর্ষের উপহার’

ফরিদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৫৩ ২৪ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৬:০২ ২৪ জানুয়ারি ২০২০

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

রাজবাড়ী থেকে ফরিদপুর হয়ে ভাঙ্গা পর্যন্ত রেল যোগাযোগ চালু মুজিববর্ষের আরেকটি উপহার উল্লেখ করে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছা বাংলাদেশকে ইউরোপের মতো এগিয়ে নেয়া। এ ভাঙ্গাকেও আমরা ইউরোপের মতো আধুনিকায়ন করে গড়ে তুলবো। ফরিদপুরের এ ভাঙ্গা রেল স্টেশন হয়ে পদ্মা সেতুর সঙ্গে সরাসরি ঢাকা-ভাঙ্গা রেল চলাচলও উদ্বোধন করা হবে।

শুক্রবার সকালে ভাঙ্গায় নবনির্মিত রেলস্টেশন উদ্বোধনের সময় রেলমন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, ভাঙ্গা থেকে কুয়াকাটা এবং পায়রাবন্দর পর্যন্ত বর্ধিত আরেকটি রেললাইন স্থাপন করা হবে। আমরা চাচ্ছি ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৭২ কিলোমিটার রেলপথ ২০২৪ সালের মধ্যে নির্মাণ সম্পন্ন করতে। পদ্মা সেতুর সঙ্গে যেন ভাঙ্গা থেকে মাওয়া হয়ে ঢাকা পর্যন্ত রেল চলাচল করতে পারে সে বিষয়টি দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য এখানকার কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। 

এ সময় রেলমন্ত্রী জানান, আগামী ২৬ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বহুদিনের কাঙ্ক্ষিত এ রাজবাড়ী-ফরিদপুর-ভাঙ্গা পর্যন্ত রেল চলাচল উদ্বোধন করবেন। এর মাধ্যমে এ অঞ্চলের যোগাযোগ পথে একটি বৈপ্লবিক অধ্যায়ের সূচনা হবে। 

পরে রেলমন্ত্রী একটি মোটরট্রলিতে চড়ে ভাঙ্গা রেল স্টেশন থেকে ফরিদপুর স্টেশন পর্যন্ত রেলপথ পরিদর্শন করেন। এ সময় রেলমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন রেল মন্ত্রলালয়ের মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহ, প্রধান প্রকৌশলী আল ফাত্তাহ মাসুদুর রহমান।

এছাড়া রেলমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে ফরিদপুরের ভাঙ্গা রেলস্টেশনে উপস্থিত ছিলেন ডিসি অতুল কুমার সরকার, এসপি মো. আলিমুজ্জামান বিপিএম, অতিরিক্ত ডিসি (রাজস্ব) আসলাম মোল্লা, অ্যাডিশনাল এসপি গাজী রবিউল ইসলাম, ভাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম হাবিবুর রহমান, ভাঙ্গা’র ইউএনও মুকতাদিরুল আহমেদ প্রমুখ ।

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর ২০১৪ সালের জুলাই মাসে ফরিদপুর হতে রাজবাড়ি রেল চলাচল শুরু হয়। এরপর সম্প্রতি ফরিদপুর হতে ভাঙ্গা পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার রেল চালুর উদ্যোগ নেয় সরকার। ২৬ জানুয়ারি হতে এ রেল চলাচল শুরু হবে। এ পথে একটি আন্তনগর ট্রেন চালুর জন্য স্থানীয়দের জোর দাবি রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ