Alexa রাজধানীতে অভিমান করে গৃহবধূর আত্মহত্যা

রাজধানীতে অভিমান করে গৃহবধূর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:২৪ ১৪ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ২০:২৭ ১৪ আগস্ট ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রাজধানীর পূর্ব রামপুরার আবদুল্লাহবাগ মসজিদ এলাকার একটি বাসা থেকে তাসলিমা বেগম (৩৫) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

নিহতের স্বামীর বরাতে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে বাসার শিশু গৃহকর্মীকে মারধর করেন তার স্ত্রী। এতে অসন্তুষ্ট হয়ে তিনি স্ত্রীকে মৃদু বকুনি দিয়েছিলেন। এরপরই অভিমানে আত্মহত্যা করেন তাসলিমা। 

রামপুরা থানার ওসি আবদুল কুদ্দুছ ফকির জানান, ঘরের দরজা ভেঙ্গে নিহতের স্বজনরা ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করেন। তবে কেউ পুলিশের কাছে কোনো অভিযোগ করেননি। এমনকি নিহতের বাবার বাড়ির লোকেরাও ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ নেয়ার অনুরোধ করেছিলেন। তবে তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হতে ময়নাতদন্তের ব্যবস্থা করে পুলিশ।

মৃতের স্বামী জাহাঙ্গীর আলম জানান, পোশাক কারখানার যন্ত্রাংশের ব্যবসা করেন তিনি। তার গ্রামের বাড়ি রাজবাড়ী সদরে। ঢাকায় আবদুল্লাহবাগের একটি দোতলা বাসায় তিনি পরিবার নিয়ে থাকেন। 

তিনি বলেন, তার বাসায় ৮ থেকে ৯ বছর বয়সী এক শিশু গৃহকর্মী কাজ করে। মঙ্গলবার রাতে এক ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে মারধর করেন তাসলিমা। এ সময় ছোট্ট মেয়েটিকে মারধর করায় তিনি স্ত্রীকে বকুনি দেন। এতে অভিমান করে নিজের ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন তাসলিমা। অনেকক্ষণ ডাকাডাকি করলেও তিনি কোনো সাড়া দেননি। একপর্যায়ে তার দুই মেয়ে বলে, মাকে কিছুক্ষণ চুপচাপ থাকতে দাও বাবা, একটু পরই রাগ কমে যাবে।

জানা যায়, মেয়েদের পরামর্শই মেনে নেন তিনি। তবে দীর্ঘসময়েও স্ত্রী বের হয়ে না আসায় তিনি দুশ্চিন্তায় পড়েন। একপর্যায়ে দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় স্ত্রীকে দেখতে পান তিনি। তাকে উদ্ধার করে রাত সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসকরা জানান, আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। 
 
ডেইলি বাংলাদেশ/এসবি/জেডআর

 

Best Electronics
Best Electronics