Alexa যুবকের হাত-পা বেঁধে নদীতে ফেলে হত্যা

যুবকের হাত-পা বেঁধে নদীতে ফেলে হত্যা

মুকসুদপুর (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০১:০৯ ১৬ অক্টোবর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে হাত-পা বেঁধে এক যুবককে নদীতে ফেলে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার গোহালা ইউপির উত্তর গঙ্গারামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শাহ আলম একই গ্রামের আব্দুল খালেক শেখের ছেলে।

স্থানীয়রা পুলিশকে জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার সকালে সিন্দিয়াঘাট বাজারে সাবেক চেয়ারম্যান লিটন বয়াতির অনুসারী ও বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুল আলম মোল্লার অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে উভয়পক্ষের নারীসহ দশজন আহত হন। আহতদের রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

তারা আরো জানায়, দুপুরে রাজৈর হাসপাতালে চাচাতো বোন মিনাকে দেখে বাড়ি আসার পথে নিখোঁজ হন শাহ আলম। স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পাননি। রাতে কুমার নদে হাত-পা বাঁধা শাহ আলমকে দেখে স্বজনদের খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে তাকে উদ্ধার করে রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

চাচাতো বোন মিনা জানান, প্রতিপক্ষরা আমার ভাইকে হাত-পা বেঁধে হত্যা করে নদীতে ফেলে দিয়েছে।

মুকসুদপুর থানার ওসি মোস্তফা কামাল পাশা জানান, মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর