যশোরের উদ্দেশে ট্রেনে উঠলেন ৭০ বছরের বৃদ্ধা, গেলেন বগুড়ায়

যশোরের উদ্দেশে ট্রেনে উঠলেন ৭০ বছরের বৃদ্ধা, গেলেন বগুড়ায়

নওগাঁ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৫:১৮ ১ এপ্রিল ২০২০  

বৃদ্ধা ফাতেমাকে আশ্রয় দেন সান্তাহার পৌরসভার মেয়র

বৃদ্ধা ফাতেমাকে আশ্রয় দেন সান্তাহার পৌরসভার মেয়র

যশোরের ট্রেন ভেবে ভুল করে বগুড়ার ট্রেনে উঠে পড়েছিলেন ৭০ বছরের বৃদ্ধা ফাতেমা বেগম। সাতদিন ধরে আটকে আছেন সান্তাহার স্টেশনে।

মঙ্গলবার সকালে এ খবর পেয়ে ছুটে গেছেন সান্তাহার পৌরসভার মেয়র তোফাজ্জল হোসেন। ওই বৃদ্ধাকে আশ্রয় দিয়েছেন পৌরসভার একটি ঘরে।

বৃদ্ধা ফাতেমা বেগম যশোর শহরের শংগরপুর গোলপাতা এলাকার শেখ খলিল মিয়ার ছেলে।

ফাতেমা বেগম জানান, সপ্তাহ খানেক আগে তিনি চিকিৎসার জন্য ঢাকায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে যান। ২৫ মার্চ কমলাপুর স্টেশন থেকে ভুল করে যশোরের ট্রেনে না উঠে উত্তরাঞ্চলের ট্রেনে উঠেন তিনি। ওইদিন সন্ধ্যায় সান্তাহার স্টেশনে নেমে যান। করোনাভাইরাসের কারণে ২৬ মার্চ থেকে গণপরিবহন বন্ধ হয়ে যায়। এতে সান্তাহার স্টেশনেই আটকে পড়েন ওই বৃদ্ধা। এক সময় কান্নাকাটি শুরু করলে স্টেশন কর্তৃপক্ষ তাকে টিকেট কাউন্টারে আশ্রয় দেয়।

পৌর মেয়র তোফাজ্জল হোসেন জানান, ওই বৃদ্ধা স্টেশনে কান্নাকাটি করছিলেন। পরে টিকেট কাউন্টারে তার থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। মঙ্গলবার সকালে স্টেশন থেকে তাকে পৌরসভার একটি ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে একজন পিয়ন তার দেখভাল করছেন।

তিনি আরো জানান, বাড়ি ফেরার জন্য মাঝেমধ্যেই কান্নাকাটি করছেন ওই বৃদ্ধা। পরিবারের ঠিকানা বলতে পারলেও স্বজনদের মোবাইল নম্বর বলতে পারছেন না। এ কারণে কারো সঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না।

মেয়র জানান, সাধ্যমতো সব জায়গায় খোঁজ চলছে। এখন পর্যন্ত তার খোঁজে কেউ যোগাযোগ করেনি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত তিনি এখানেই থাকবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর