Alexa ময়মনসিংহে জুস খেয়ে চিরঘুমে চলে গেলেন সুস্মিতা

ময়মনসিংহে জুস খেয়ে চিরঘুমে চলে গেলেন সুস্মিতা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:২২ ৩ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১৬:২৭ ৩ অক্টোবর ২০১৯

সুস্মিতা। ছবি: সংগৃহীত

সুস্মিতা। ছবি: সংগৃহীত

ময়মনসিংহে দুই শিশু হকারের অনুনয়-বিনয়ে অনিচ্ছা সত্ত্বেও একটি জুসের বোতল কেনেন সুস্মিতা। আর এই জুস খেয়েই চিরঘুমে চলে গেলেন তিনি।  

হাসপাতালে পাঁচ দিন লড়াইয়ের পর বুধবার সন্ধ্যায় অনার্স ও মাস্টার্সে প্রথম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হওয়া এই মেধাবী ছাত্রী মারা যান।

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ডৌহাখলা ইউপিতে সুস্মিতার বাড়ি। গণিত থেকে অনার্স ও মাস্টার্স পাশ করেন সুস্মিতা।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, এক সপ্তাহ আগে বাড়ি থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে ময়মনসিংহ ব্রিজের মোড় থেকে এক বোতল পানি কেনেন সুস্মিতা। ওই সময় দুই শিশু হকার জুস বিক্রির জন্য অনুনয়-বিনয় করলে তিনি একটা জুসের বোতল কিনেন। পরে সেটি না খেয়ে ব্যাগেই রেখে দেন।

এরপর ঢাকা থেকে রাতে বাড়ি ফিরে আসেন সুস্মিতা। রাতে ভাত না খেয়ে ওই কেনা জুস খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। পরদিন সকাল ১০টা হলেও ঘুম থেকে না জাগায় তার মা ডাকাডাকি শুরু করেন। পরে বাড়ির লোকজন ও প্রতিবেশীরা ছুটি গিয়ে তাকে ঘুম থেকে উঠানোর চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি।

পরে চিকিৎসক এনে বাড়িতে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তিন দিন চিকিৎসার পরও অবস্থা ভালো না হওয়ায় ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসক।

বুধবার বিকেলে ঢাকা নেয়ার পথে শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি হতে থাকে। এই পরিস্থিতিতে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফিরিয়ে নেয়া হয়। কিন্তু তার আগেই মারা যান সুস্মিতা। 

গৌরীপুর থানার ওসি কামরুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি কিছুক্ষণ আগেই জেনেছি। এ বিষয়ে থানায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর