মৎস্য খাতের উন্নয়নে বাংলাদেশকে সহায়তা দিতে আগ্রহী মিশর

মৎস্য খাতের উন্নয়নে বাংলাদেশকে সহায়তা দিতে আগ্রহী মিশর

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:৫৯ ২৯ মে ২০২০   আপডেট: ১৯:০৭ ২৯ মে ২০২০

শ ম রেজাউল করিমের সঙ্গে ওয়ালিদ আহমেদ শামসেলদিনের সাক্ষাৎ। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

শ ম রেজাউল করিমের সঙ্গে ওয়ালিদ আহমেদ শামসেলদিনের সাক্ষাৎ। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বাংলাদেশের প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য উৎপাদন এবং মৎস্য জাতীয় পণ্যের উন্নয়নে সহায়তা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে মিশর।

শুক্রবার রাজধানীর বেইলী রোডে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের সঙ্গে তার সরকারি বাসভবনে সৌজন্য সাক্ষাতে বাংলাদেশে নিযুক্ত মিশরের রাষ্ট্রদূত ওয়ালিদ আহমেদ শামসেলদিন এ আগ্রহ ব্যক্ত করেন।

এ সময় মিশরের রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশ ও মিশর ভ্রাতৃপ্রতিম রাষ্ট্র। দুদেশের মধ্যে ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিগত নানা মিল রয়েছে। উভয় দেশের বন্ধুত্ব ও পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সহযোগিতা বৃদ্ধি করতে চায় মিশর। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য খাতে মিশরের অভিজ্ঞতা, কারিগরী সহায়তা ও এ খাতে রোগ প্রতিরোধে মিশরীয় ওষুধ ব্যবহার করার সুযোগ রয়েছে। মিশর মৎস্য খাতে অভাবনীয় উন্নতি সাধন করেছে। সে অভিজ্ঞতা বাংলাদেশও গ্রহণ করতে পারে। বিশেষ করে গবাদিপশুর সংক্রামক ব্যাধি বন্ধ করতে বিশ্বমানের ওষুধ ও ভ্যাকসিন নিতে পারে বাংলাদেশ।

মিশরের রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে আমিষ ও পুষ্টির জন্য বিশ্বব্যাপী মাছ, মাংস, দুধ ও ডিমের ব্যাপক চাহিদা হবে। সেক্ষেত্রে পোল্ট্রি, মৎস্য ও ডেইরি খাতে উৎপাদন বৃদ্ধিতে বাংলাদেশকে সব ধরনের সহযোগিতা দিতে আগ্রহী মিশর।

এ সময় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম মিশরের এই আগ্রহকে আন্তরিকতার সঙ্গে বিবেচনার আশ্বাস দেন। এছাড়াও উভয় দেশে সংশ্লিষ্ট খাতে আরো কী কী সহযোগিতার ক্ষেত্র সৃষ্টি করা যায় তা খতিয়ে দেখতে উভয় পক্ষ সম্মত হন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএইচআর/জেডআর