মেসির সমান জামাল!

মেসির সমান জামাল!

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:০৮ ২২ মার্চ ২০২০  

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে সারাবিশ্বেই।  করোনার প্রকোপ থেকে বাঁচতে সবাইকে বাসায় থাকার আহ্বান জানাচ্ছেন ক্রীড়া তারকারা। বাসায় বসে একঘেয়েমিতে পেয়ে বসেছে ফুটবলারদের। আর তাই ‘টয়লেট রোল চ্যালেঞ্জ’ এর মাধ্যমে সবাইকে বাসায় থাকার আহ্বান জানাচ্ছেন তারা। এবার সে তালিকায় এবার নাম লেখালেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। কয়েক দিন আগেই লিওনেল মেসি এই কারিকুরিটা দেখিয়েছিলেন। এবং তার সমান জাগল করলেন জামাল।

ঘরে বসে একঘেয়েমিতে টয়লেট পেপার নিয়ে জাগল করে ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ‘টয়লেট রোল চ্যালেঞ্জ’ হিসেবে পোস্ট করছেন ফুটবলাররা। 

মানুষকে ঘরে থাকতে উদ্দেশ্য করে তাঁদের এই টয়লেট রোল চ্যালেঞ্জ।

কম বেশী সব ফুটবলার যেখানে মাত্র দশবার জাগল করেই থেমে গিয়েছিলেন, মেসি সেখানে টয়লেট রোল জাগল করেছেন উনিশবার। মেসির সমান উনিশবার জাগল করলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়াও!

গতকাল নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক ভিডিও পোস্ট করেন জামাল। সেখানে দেখা গেল, আপাদমস্তক কালো হুডি, গেঞ্জি, প্যান্ট আবৃত জামাল টয়লেট রোল জাগল করছেন। এক, দুই, তিন করে থামলেন একদম উনিশে গিয়ে। শেষে জোরে ভলি করলেন একবার, মনে হলো, সামনে ফাঁকা গোলপোস্টই আছে বুঝি! ভিডিওর ক্যাপশনে জামাল লিখেছেন, ‘বাসায় থাকুন, কাজ করুন, নিরাপদ থাকুন। নিজেরা বাসায় টয়লেট রোল চ্যালেঞ্জ ভিডিও করে আমার কমেন্ট সেকশনে পোস্ট করুন।’

মেসি-জামালের আগে এই চ্যালেঞ্জে অংশ নিয়েছেন অনেক ফুটবলার। এদের মধ্যে রয়েছেন আর্সেনালের জার্মান সেন্টারব্যাক শকোদ্রান মুস্তাফি, চেলসির দুই তরুণ তারকা ক্রিস্টিয়ান পুলিসিক, মেসন মাউন্ট ও বিলি গিলমোর, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ব্রুনো ফার্নান্দেস, মার্কাস রাশফোর্ড ও অ্যান্থনি মার্সিয়াল, ম্যানচেস্টার সিটির বেঞ্জামিন মেন্ডি ও ফিল ফোডেন, মোনাকোর সেস ফ্যাব্রিগাস, রিয়াল মাদ্রিদের মার্সেলো ও সার্জিও রামোস, এভারটনের রিচার্লিসন ও থিও ওয়ালকট, এএস রোমার কিংবদন্তি স্ট্রাইকার ফ্রান্সেসকো টট্টি প্রমুখ।

শুধু ফুটবলাররাই নন, এই চ্যালেঞ্জে মেতেছেন অন্য খেলার তারকারাও। উসাইন বোল্টই যেমন। গতকাল নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে এমন একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন বোল্টও।

 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস