‘মেম্বর তো খালি ভোডের সময় আয়’

‘মেম্বর তো খালি ভোডের সময় আয়’

নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:০৯ ২৩ মে ২০২০   আপডেট: ১৮:২১ ২৩ মে ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলা খারুয়া ইউপির খয়ারপুর-রাজাপুর সড়কে একটি কালভার্ট দীর্ঘদিন ধরে ভেঙে পড়ে আছে। এতে এলাকাবাসীর চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

স্থানীয় কয়ারপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন কালভার্টটি প্রায় ছয় মাস ধরে বেহাল অবস্থা। খসে পড়েছে কালভার্টটির উপরের আস্তর, বের হয়ে গেছে রড। আশপাশের সাতটি গ্রামের প্রায় ৩ হাজার মানুষ প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে। 

এই কালভার্টের উপর দিয়ে কয়ারপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রাজাপুর ফাজিল মাদরাসার হাজারো শিক্ষার্থী নিয়মিত চলাচল করে। দীর্ঘদিন ধরে কালভার্টটির এমন বেহাল অবস্থা হলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা কেউ দায়িত্ব নিয়ে এটি মেরামতের জন্য এগিয়ে আসেনি বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

স্থানীয় যুবক আজাহারুল জানান, মেম্বার-চেয়ারম্যানকে বারবার বলার পরও এটি মেরামতের কোনো উদ্যোগ নেয়নি। এতে করে সাধারণ জনগণের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কোনো মালামাল পরিবহন করতে ও জটিল কোনো রোগী হাসপাতালে নিতেও অনেক বেগ পেতে হচ্ছে। 

বয়োবৃদ্ধ আবদুল কুদ্দুস বলেন, ‘মেম্বর তো খালি ভোডের সময় আয়, আমরা যে চলতারিনা অহন তো খবর লয় না।’

স্থানীয় ইউপি সদস্য অলিউল্লাহ দায় এড়িয়ে বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে জানি না। নিজ ওয়ার্ড হওয়া সত্ত্বেও কেন জানেন না, এমন প্রশ্নে তার কাছ থেকে কোনো সদুত্তর পাওয়া যায় নি।   

ইউ পি চেয়ারম্যান কামরুল হাসনাত মিন্টু ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এটি ছাড়াও এই ইউপিতে আরো চারটি কালভার্ট ভেঙে গেছে। এই কালভার্টগুলো অনেক পুরাতন। রডের সংখ্যা খুবই কম। ট্রলি ইজিবাইকসহ মাঝারি পাল্লার যানবাহন চলার কারণে এমন হচ্ছে। 

তিনি আরো জানান, এই মুহূর্তে কোনো অর্থ বরাদ্দ না থাকায় নির্মাণ করা সম্ভব হচ্ছে না। আগামী জুনের পর অর্থ ছাড় পেলে নির্মাণ করা সম্ভব হবে।                  

নান্দাইলের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আ. আলীমকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেন নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে