মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার শিল্পীদের চিত্র প্রদর্শন

মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার শিল্পীদের চিত্র প্রদর্শন

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:০৬ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৯:১২ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার চিত্রশিল্পীদের অংশগ্রহণে ‘মুজিব শতবর্ষ’ শীর্ষক চিত্রকলা প্রদর্শনী। সোসাইটি ফর প্রমোশন অব বাংলাদেশ আর্ট (এসপিবিএ)র আয়োজনে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারিতে শনিবার থেকে শুরু হয়েছে এই আয়োজন, শেষ হবে ২৮ ফেব্রুয়ারি।

প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মোট ১৮ জন শিল্পীর ৭২টি শিল্পকর্ম প্রদর্শিত হচ্ছে। এই প্রদর্শনীর একটি অংশে রয়েছে বঙ্গবন্ধু কর্ণার। সেখানে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ মূর্তি, স্কেচ, ও পেইন্টিং প্রদর্শিত হচ্ছে। 

এই প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, চিত্রশিল্পী হাশেম খান, শিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদ, এসপিবিএ এবং স্কয়ারের প্রধান অঞ্জন চৌধুরীসহ দুই দেশের শিল্পী ও কূটনীতিকরা।

এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, শিল্প সর্বজনীন। অতি শক্তিশালী এর প্রকাশ এবং প্রভাব। প্রদর্শনীর ছবিগুলো মন দিয়ে দেখেছি। প্রতিটি ছবির নিজস্ব আঙ্গিক ও আলাদা বৈশিষ্ট্য রয়েছে। তবে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে আমাদের দেশের সংস্কৃতির ঐতিহ্য এবং মেলবন্ধ প্রায় একই। সেদিক থেকে উভয় দেশের মধ্যে বন্ধুপ্রতীম সম্পর্ক আরো দৃঢ় করতে শিল্পীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে এ প্রদর্শনী।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেন, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে অনেক কিছুতেই মিল আছে। দুটি দেশের অবস্থানও প্রায় পাশাপাশি। এই সাংস্কৃতিক আদান-প্রদান অব্যাহত থাকা উচিত। ভবিষ্যতে আরো অনেক সৃজনশীল কাজ হোক দুই দেশের মধ্যে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং নন্দিত চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রদর্শনীর সব ছবিই সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন। চোখ জুড়ায়, মন ভরায়। খুব চমৎকার কাজ করেছেন শিল্পীরা। আমাদের অনেক বড় কাজ করলেই হবে না, একই সঙ্গে আমাদের শেকড়কেও ধরে রাখতে হবে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর এ আয়োজনকে আমি বাহবা জানাই।

অনুষ্ঠানের আয়োজক এসপিবিএ-র চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ-শ্রীলংকার দুই দেশের শিল্পীদের প্রদর্শনী ও আর্টক্যাম্প করতে পেরে আনন্দিত। এই প্রদর্শনী উপলক্ষ্যে শ্রীলঙ্কার ৪ জন শিল্পী ঢাকা এসেছে। এর মাধ্যমে দুই দেশের শিল্পীদের একটি যোগসূত্র তৈরি হলো। ভবিষ্যতে তা আরো সুদৃঢ় হবে বলেই বিশ্বাস করি। 

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের স্মৃতির প্রতি এই প্রদর্শনী উৎসর্গ করতে পেরে ভালো লাগছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় লালিত বাঙালি শিল্প-সংস্কৃতির চর্চা ও বিকাশে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন আজ বিকশিত, প্রস্ফুটিত। কারণ জাতির পিতার হাত ধরেই দেশের সাহিত্য ও শিল্পকলায় নবধারা রচিত হয়েছিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনএ