ট্রাম্পকে মুখ বন্ধ রাখতে বললেন পুলিশ প্রধান

ট্রাম্পকে মুখ বন্ধ রাখতে বললেন পুলিশ প্রধান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৪৮ ২ জুন ২০২০   আপডেট: ১২:৫০ ২ জুন ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেপোলিসে শ্বেতাঙ্গ পুলিশের নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রতিবাদে ফুসে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির রাজধানীসহ ৪০টি শহরে চলছে কারফিউ। এর মধ্যেও থেমে নেই প্রতিবাদ বিক্ষোভ।

এমন অবস্থায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে মুখ বন্ধ রাখতে বলেছেন টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের হৌস্টন কাউন্ট্রির পুলিশের প্রধান আর্ট আচেভেদো। চলমান বিক্ষোভ নিয়ে অঙ্গরাজ্যের গভর্নরদের ব্যর্থ বলার প্রতিক্রিয়ায় এই মন্তব্য করেছেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

সংবাদ সংস্থা সিএনএনের তথ্যানুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের গভর্নরদের ওপর বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণ করতে না পারার দায় চাপিয়ে দিচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি গভর্নরদেরকে দুর্বল আখ্যা দিয়ে বলেছেন, তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ।

সোমবার আর্ট আচেভোদো নামের ওই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, কাউন্ট্রির পুলিশ প্রধান হিসেবে আমি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টকে বলছি, আপনার যদি গঠনমূলক কোনকিছু বলার না থাকে, তাহলে অন্তত মুখটা বন্ধ রাখুন। 

গত ২৫ মে পুলিশের নির্যাতনের পর মারা যান জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ। তাকে পুলিশের নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ওই ভিডিও প্রকাশ হতেই বিক্ষোভ দানা বাঁধে যুক্তরাষ্ট্রে। এক শহর থেকে আরেক শহরে ছড়িয়ে পড়ে বিক্ষোভের আগুন।

ঘাড়ে ও পিঠে ক্রমাগত হাঁটু দিয়ে চাপ দিয়ে রাখার কারণে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা যান আফ্রিকান-আমেরিকান জর্জ ফ্লয়েড। মিনিয়াপলিসের এক পুলিশ কর্মকর্তা ফ্লয়েডকে মাটিতে ফেলে হাঁটু দিয়ে তার ঘাড় চেপে ধরেন। আট মিনিটের বেশি সময় ধরে এভাবে হাঁটুর চাপে শ্বাসরোধে মৃত্যু হয় ফ্লয়েডের।

সম্প্রতি এক ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে তার মৃত্যুকে হত্যাকাণ্ড হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন জর্জ ফ্লয়েডের পরিবারের আইনজীবী বেন ক্রাম্প।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ