Alexa মিথ্যা বলছে চীন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১ লাখ!

মিথ্যা বলছে চীন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১ লাখ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৪১ ২৬ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৪:৪৭ ২৬ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

চীনে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছেই। দেশটিতে সরকার যতটা বলছে তার চেয়েও পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হয়ে পড়েছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে প্রায় এক লাখ মানুষ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে উহানে কর্মরত এক নার্স দাবি করেছেন।

তবে দেশটির সরকার জানিয়েছে, নতুন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় দুই হাজার মানুষ। গত ডিসেম্বরের শেষের দিকে হুবেই প্রদেশের রাজধানী শহর উহানে প্রথম এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটে।

উহান শহরের হাসপাতালে কর্মরত ওই নার্সের দাবি, উহান শহর ও পুরো চীনজুড়ে ৯০ হাজার মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

মাস্ক পরে হাসপাতালে রোগীদের চিকিৎসায় নিয়োজিত ওই নার্স এক ভিডিওতে বলছেন, করোনাভাইরাসের যেখানে আবির্ভাব আমি সেখানে। আমি এখানে সত্য বলতে এসেছি। দেশটিতে সরকারিভাবে যে সংখ্যা বলা হচ্ছে প্রকৃতপক্ষে আক্রান্তের সংখ্যা আরো কয়েক গুণ বেশি।

ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউটিউবে ওই নারীর এই ভিডিওটি ২০ লাখেরও বেশি বার দেখা হয়েছে। তিনি ওই ভিডিওতে সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছেন। তিনি বলেন, আমি সবাইকে বলতে চাই যারা এই ভিডিও দেখছেন তারা দয়া করে বাইরে বের হবেন না। কোনো পার্টি করবেন না। বাইরে কিছু খাবেন না। এক বছর পর আমরা নববর্ষ পালন করতে পারব। যদি আপনারা এখন নিরাপদ থাকেন তবে পরিবারের সঙ্গে সুস্থভাবে আগামী বছর মিলিত হতে পারবেন।

এ ভাইরাসে আক্রান্ত হলে শুরুতে জ্বর ও শুষ্ক কাশি হতে পারে। এর কয়েক সপ্তাহ পর শ্বাসকষ্টও দেখা দেয়। অনেক সময় নিউমোনিয়াও হতে পারে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে রোগীর অবস্থা বেশি খারাপ হওয়ায় তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা লাগে। তবে এসব লক্ষণ মূলত রোগীরা হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরই জানা গেছে।

সেক্ষেত্রে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার একদম প্রাথমিক লক্ষণ কী তা আদৌ বোঝা যায় কি-না তা এখনো অজানা। তবে নতুন এই করোনাভাইরাস যথেষ্ট বিপজ্জনক। সাধারণ ঠান্ডা-জ্বরের লক্ষণ থেকে এটি মৃত্যুর দুয়ার পর্যন্তও নিয়ে যেতে পারে।

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং প্রাণঘাতী নতুন ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে বলে সতর্ক করেছেন। চীনের নববর্ষের অনুষ্ঠানে সরকারি কর্মকর্তাদের নিয়ে করা এক বিশেষ বৈঠকে প্রেসিডেন্ট বলেন, দেশ 'মারাত্মক পরিস্থিতি'র মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।

এরই মধ্যে চীনের এ ভাইরাস ১১টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। অস্টেলিয়া, নেপাল, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, ফ্রান্স এবং যুক্তরাষ্ট্রে এ ভাইরাসে বেশ কয়েকজন আক্রান্ত হয়েছে বলে দেশগুলো নিশ্চিত করেছে। এছাড়া চীনে এ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

সূত্র:  ডেইলি মেইল

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ