মানিকগঞ্জে মোকসেদকে হত্যায় আসামির স্বীকারোক্তি

মানিকগঞ্জে মোকসেদকে হত্যায় আসামির স্বীকারোক্তি

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২৩:৩৬ ২৮ মার্চ ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার লেমুবাড়ি গ্রামের মোকসেদ আলী আজুকে হত্যার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন মো. সাগর হোসেন গুপাল।

শনিবার দুপুরে মানিকগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

মো. সাগর হোসেন গুপাল সদর উপজেলার পুটাইল ইউপির ভাটারা গ্রামের দোয়াত আলীর ছেলে ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ১৬ মার্চ রাতের খাবার খেয়ে বাড়ি থেকে বের হন লেমুবাড়ি গ্রামের কৃষক মোকসেদ আলী। এরপর তিনি আর বাড়ি ফেরেননি। কোথাও তার খোঁজ না পাওয়ায় পরের দিন পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় জিডি করা হয়। ওই দিনই দুপুরে বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে হিজলাইন এলাকায় কালিগঙ্গা নদীর পাশে কাশবনে স্থানীয় লোকজন তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে।   

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় গত ১৭ মার্চ নিহত মোকসেদের স্ত্রী সাজেদা বেগম বাদী হয়ে মানিকগঞ্জ সদর থানায় অজ্ঞাত পরিচয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন। 

মানিকগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হানিফ সরকার বলেন, শত্রুতার জেরে আসামি সাগর মুঠোফোনে মোকসেদকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। মুঠোফোনের সূত্র ধরে শুক্রবার সকালে সিংগাইর উপজেলার জামশা গ্রামে এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় সাগরকে। 

এরপর শনিবার তাকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল রাফিন সুলতানার আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় আদালতে ১৬৪ ধারায় হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করেন তিনি। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম