Alexa মাকে গোয়াল ঘরে শিকলবন্দী করলেন সন্তানরা!

মাকে গোয়াল ঘরে শিকলবন্দী করলেন সন্তানরা!

বরগুনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২১:৪৫ ১৫ অক্টোবর ২০১৯  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

মানসিক রোগী আখ্যা দিয়ে মাকে গোয়াল ঘরে শিকলবন্দী করে রেখেছেন সন্তানরা। গত পাঁচ মাস ধরে বরগুনা সদর উপজেলার গৌরিচন্না ইউপির চরধুপতি এলাকার ৭৫ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধা সন্তানদের নির্মমতায় শিকলবন্দী জীবনযাপন করছেন। সেই সংবাদ পেয়ে মঙ্গলবার বরগুনার ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহর নির্দেশে খবিরুন্নেসা নামের ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে তার মেয়ে তাসলিমার জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

মূলত পৈতৃক জমি-জমা ভাগ বাটোয়ারা হওয়ায় পর ছেলেদের কেউ বৃদ্ধা মায়ের যত্ন নিতে রাজি হননি। এ কারণে তাকে অবহেলায় গোয়াল ঘরে ফেলে রাখা হয়েছে। কোথাও যেন যেতে না পারেন সে কারণে কোমরে লোহার শেকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে। ওই গোয়াল ঘরেই দিনে একবার তাকে খাবার দেয়া হতো।

প্রতিবেশীরা জানান, গত পাঁচ মাস ধরে মা খবিরুন্নেসাকে গোয়াল ঘরে বিছানা পেতে গরু বাঁধার দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। একদিন দড়ি খুলে তিনি মেয়ের বাড়িতে যাওয়ার পথে ফের তাকে ছেলেরা ধরে আনেন। পরে একই স্থানে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। শেকল বাঁধা অবস্থায় প্রায় পাঁচ মাস ধরে তিনি গোয়াল ঘরেই জীবনযাপন করছেন।

বয়সের ভারে কানে একটু কম শুনলেও খবিরুন্নেসা মানসিকভাবে স্বাভাবিক বলে জানান প্রতিবেশীরা। মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর বরগুনা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউপি চেয়ারম্যান ওই বাড়িতে গিয়ে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করেন। এ সময় তাকে পোশাক ও টাকা দিয়ে মেয়ে তাসলিমার জিম্মায় দেয়া হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ