মহাশূন্যে নারী নেতৃত্ব!
Best Electronics

মহাশূন্যে নারী নেতৃত্ব!

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৯:১৭ ৮ মার্চ ২০১৯   আপডেট: ১০:৪১ ৮ মার্চ ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মহাশূন্যে থাকা স্পেস স্টেশনে নারী নভোচারীর পা পড়েছে ৩৫ বছর আগে। কিন্তু সেই কাজের নেতৃত্বে ছিলেন পুরুষ। এবার নারী নভোচারীরা ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনের বাইরে কাজ করবেন। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ২৯ মার্চ এই যাত্রা সফল হতে পারে।

এবারই প্রথম ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশন থেকে কোনো পুরুষ নভোচারী বের হবেন না। ব্যাটারি বদলানোর পুরো একটি মিশন পরিচালনা করবেন নারী নভোচারী ক্রিস্টিনা কোচ ও অ্যানি ম্যাকক্ল্যেইন। এই কাজে তাদের সময় লাগবে ৭ ঘণ্টা।

কাকতালীয়ভাবে পৃথিবী থেকে তাদের সহায়তাও দেবেন কানাডিয়ান স্পেস এজেন্সির নারী ফ্লাইট ডিরেক্টর ম্যারি লরেন্স ও ফ্লাইট কন্ট্রোলার ক্রিস্টেন ফ্যাসিওল। টেক্সাসে অবস্থিত নাসার জনসন স্পেস সেন্টার থেকে দুই নভোচারীকে দিক নির্দেশনা দেবেন তারা। এ ব্যাপারে এক টুইটে ক্রিস্টেন ফ্যাসিওল বলেন, মাত্র জানলাম নারী নভোচারীদের স্পেসওয়াকে আমি সহায়তা দেব। উত্তেজনা চেপে রাখতে পারছি না।

এ ঘটনায় নাসার মুখপাত্র জানিয়েছে, নারীদের প্রধান্য দিতে এ পরিকল্পনা করা হয়নি। কাজটি হওয়ার কথা ছিল গেল বছরই।

আজ থেকে ৩৫ বছর আগে ১৯৮৪ সালে স্পেসওয়াকে অংশ নেওয়া প্রথম নারী ছিলেন স্যালানা সাভিস্টকায়া। মূলত নতুন যন্ত্রের পরীক্ষা-নিরীক্ষা, বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা,  মেরামত ও সার্ভিসিংয়ের কাজে স্পেসওয়াকে অংশ নিয়ে থাকেন নভোচারীরা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে

Best Electronics