মনের দুঃখে ৩৫ যাত্রীসহ লেকে বাসচালকের ঝাঁপ

মনের দুঃখে ৩৫ যাত্রীসহ লেকে বাসচালকের ঝাঁপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৫০ ১৩ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১৭:৫৫ ১৩ জুলাই ২০২০

বাস ও লাশ উদ্ধারে ব্যস্ত দমকাল বাহিনী। ছবি: গ্লোবাল টাইমস।

বাস ও লাশ উদ্ধারে ব্যস্ত দমকাল বাহিনী। ছবি: গ্লোবাল টাইমস।

এক জনের মনের দুঃখে কত মানুষের মৃত্যু হতে পারে? প্রশ্নটি শুনেই হয়তো অনেকেই ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে যাবেন। কারণ রাজা বা বাদশাহদের মনের দুঃখে হয়তো একসঙ্গে ২০ জনের প্রাণনাশ হয় না। কিন্তু এক বাস চালকের মনের দুঃখের কারণে নিজেসহ ২১ জনের প্রাণ চলে গেছে।
 
গত মঙ্গলবার চীনের গুইঝাউ প্রদেশের দক্ষিণপশ্চিমে আনশুন শহরে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে। পরে একের পর এক সেখান থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

আনশুন শহরের পুলিশ জানায়, ওই দিন সকালে বাস চালক ঝাং-এর বাড়ি ভাঙতে হাজির হন স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা। তাৎক্ষণিক তিনি হটলাইনে ফোন করে অভিযোগ জানান। তবে গত জুনে নিজের বাড়ির ধ্বংসের সম্মতি দিয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলেন ঝাং। ক্ষতিপূর্ণ হিসেবে ৭২,০০০ ইউয়ান অর্থাত্ ১০,০০০ মার্কিন ডলার পাওয়ার কথা ছিল তার। কিন্তু সেই টাকার দাবি তিনি করেননি।

পুলিশের ধারণা, বাড়ি ভাঙার কারণে ৫২ বছরের ঝাং মনোবেদনায় ভুগছিলেন। বাস চালানোকালে যাত্রীদের উঠা-নামার সময় তিনি একটু আধটু মদ পান করছিলেন। বাস চলাকালে আচমকা লেকের দিকে এগিয়ে যান তিনি। সোজা বাসের সব যাত্রী নিয়ে লেকে ঝাঁপ দেন তিনি। এতে বাসচালক ঝাংসহ ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে পাঁচজন পরীক্ষার্থী ছিলেন। এ ঘটনায় আহত হন ১৫ জন।

পুলিশ জানায়, ঝাং-এর ময়নাতদন্তের রিপোর্টে তার শরীরে অ্যালকোহল পাওয়া গেছে।

এদিকে একই সঙ্গে ২১ জনের মৃত্যুর পর চীনে নিন্দার ঝড় বইছে। বাসচালকের সমালোচনা করে নেটিজেনরা বলছেন, দুঃখ থাকলে নিজের জীবন নিয়ে খেলতে পারে। কিন্তু অনেকগুলো জীবন শেষ করে পরিবারগুলোকে হাহাকারে ফেলে দিলে কেন!

সূত্র- গ্লোবাল টাইমস। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ