Alexa মধুর সঙ্গে বিষ খাইয়ে ছেলেকে হত্যা করলেন মা

মধুর সঙ্গে বিষ খাইয়ে ছেলেকে হত্যা করলেন মা

ফরিদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩৬ ১৬ নভেম্বর ২০১৯  

স্বপ্না বেগম (ছবি: সংগৃহীত)

স্বপ্না বেগম (ছবি: সংগৃহীত)

ফরিদপুরের সদরপুরে সৎ মায়ের বিরুদ্ধে আট বছরের ছেলেক মধুর সঙ্গে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সকালে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

উপজেলার আকোটেরচর ইউপির রমজান মোল্যার ডাঙ্গী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত তানিম ওই গ্রামের ইব্রাহীম মোল্যার প্রথম স্ত্রীর ছেলে। এ ঘটনায় সৎ মা স্বপ্না বেগমকে আটক করা হয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে সদরপুর থানার ওসি সৈয়দ লুৎফর রহমান জানান, প্রায় দুই বছর আগে প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে ইব্রাহিম মোল্যার বিচ্ছেদ হয়। এরপর ইব্রাহিম একই উপজেলার ভাষাণচর ইউপির পবনখার খার ডাঙ্গী গ্রামের সরোফত উল্লাহ খানের মেয়ে স্বপ্না বেগমকে বিয়ে করেন। তাদের দেড় বছরের সংসারে আরো এক মেয়ের জন্ম হয়।

ওসি লুৎফর আরো জানান, স্বপ্না বাড়িতে আসার পর থেকেই তানিমকে সহ্য করতে পারতেন না। একপর্যায়ে সবার অজান্তে ১২ নভেম্বর দুপুরে তানিমকে মধুর সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাইয়ে দেন স্বপ্না। তানিম অসুস্থ হয়ে পড়লে দাদা আক্কাছ মোল্যা চরভদ্রাসন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বাড়িতে আসার পর শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সদরপুর হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে সদরপুর হাসপাতাল থেকে ফরিদপুর শিশু হাসপাতালে রেফার করেন চিকিৎসকরা।

ফরিদপুর শিশু হাসপাতালে তানিমের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকার শিশু হাসপাতালে রেফার করা হয়। ঢাকায় নেয়ার পথে শুক্রবার রাতে তানিম মারা যায়।

 শুক্রবার ভোরে মরদেহ ঢাকা থেকে বাড়িতে আনা হয়। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। শনিবার সকালে মরদেহটি ফরিদপুর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ফরিদপুরের অ্যাডিশনাল এসপি জামাল পাশা বলেন, এ ঘটনায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন শিশুটির বাবা। সৎমা স্বপ্না বেগমকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর