Alexa ভুল ইনজেকশনে অচেতন মুন্নির ৯০ দিনেও জ্ঞান ফেরেনি 

ভুল ইনজেকশনে অচেতন মুন্নির ৯০ দিনেও জ্ঞান ফেরেনি 

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:৪৪ ২২ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ২০:৪৭ ২২ আগস্ট ২০১৯

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

ভুল ইনজেকশনে অচেতন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থী মরিয়ম সুলতানা মুন্নির দীর্ঘ তিন মাসেও জ্ঞান ফেরেনি। গত ২১ মে গোপালগঞ্জের জেনারেল হাসপাতালে কিডনিজনিত সমস্যার চিকিৎসা নিতে যান মুন্নি। এসময় নার্স ভুল ইনজেকশন দিলে সে জ্ঞান হারায়। মুন্নির জ্ঞান হারানোর বিষয়টি জানার পরও কর্তব্যরত ডাক্তার তপন তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা না নেয়ার অভিযোগ স্বজনদের।    

অবস্থা ক্রমান্বয়ে খারাপ হতে থাকলে মুন্নিকে তড়িৎ খুলনার শেখ আবু নাসের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

সেখানে মুন্নির অবস্থা অপরিবর্তিত থাকলে একদিন পর কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শে ২২ মে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে আরো  অবনতি হতে থাকলে ১৮ জুলাই ঢাকাস্থ একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে স্থানান্তর করা হয়। অবস্থার পরিবর্তন না হলে চিকিৎসকের নির্দেশে গত ৯ আগস্ট মুন্নির গ্রামের বাড়ী গোপালগঞ্জে ফের স্থানান্তর করা হয় । দীর্ঘ ৩ মাসেও মুন্নির জ্ঞান ফেরাতে পারেননি ডাক্তাররা।

এ ব্যাপারে মুন্নির ভাই মোঃ রুবেল বলেন, আমরা মুন্নির সুস্থ্যতার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করছি। ডাক্তাররা যেখানে বলছেন সেখানেই নিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু মুন্নির কোন পরিবর্তন নাই। বর্তমানে তার অবস্থা খুবই সংকটাপন্ন ।  

এই ঘটনায় মুন্নির পরিবার গোপালগঞ্জের জেনারেল হাসপাতালের ডাঃ তপন, নার্স শাহনাজ ও কোহেলীকাকে আসামী করে সদর থানায় মামলা করেছেন।

আসামিরা হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়েছেন বলে জানান সদর থানার এস আই মুকুল।

মরিয়ম সুলতানা মুন্নি বশেমুরবিপ্রবির সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী । 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ