Alexa ভাঙছে কাশ্মীর, নতুন রাজ্য লাদাখ

ভাঙছে কাশ্মীর, নতুন রাজ্য লাদাখ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:১৫ ৫ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ১৪:৩৮ ৫ আগস্ট ২০১৯

লাদাখ

লাদাখ

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরকে দেয়া বিশেষ সাংবিধানিক মর্যাদা ‘আর্টিকেল ৩৭০’ বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার। সেসঙ্গে কাশ্মীরকে ভেঙে দুই টুকরো করার ঘোষণা দেন। কাশ্মীর ভেঙে নতুন দুই রাজ্য হবে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ। খবর বিবিসি, ইন্ডিয়া টুডে।

সোমবার ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ রাজ্যসভায় এ সম্পর্কিত একটি বিল উত্থাপন করেন। পাশাপাশি জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার প্রস্তাবও দেন তিনি।

ওই প্রস্তাবে বলা হয়েছে, কাশ্মীরের লাদাখে অসংখ্য মানুষ বাস করেন। তাদের বসতি খুবই দুর্গম জায়গায়। তাই তারা দীর্ঘ সময় ধরে দাবি করছে, যাতে লাদাখকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়। তাই লাদাখকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হবে, সেখানে কোনো বিধানসভা থাকবে না। এছাড়া জাতীয় নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে জম্মু ও কাশ্মীরকে আলাদা একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করার কথা বলা হয়েছে এদিনের প্রস্তাবে। তবে সেখানে বিধানসভা থাকবে।

এর আগে কাশ্মীর নিয়ে উত্তেজনার প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাসভবনে সোমবার সকালে মন্ত্রী সভার সদস্যদের সঙ্গে এক জরুরী বৈঠকের আয়োজন করা হয়। সেই বৈঠকের পরই এই ঘোষণা আসলো। তবে রাজ্যসভায় এই বিল উত্থাপনের পর এর বিরুদ্ধে তুমুল প্রতিবাদ জানিয়েছে বিরোধীরা।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৩৭০ ধারা তুলে নিতে দেরি করা উচিত হবে না বলেও মন্তব্য করেছেন অমিত শাহ। তিনি জানান, কাশ্মীর রাজ্যের মর্যাদা হারানোর পর জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ হবে ভারতের কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল।

যতই সময় গড়াচ্ছে ভারত শাসিত কাশ্মীরের পরিস্থিতি ততোই জটিল হচ্ছে। এরইমধ্যে গৃহবন্দি করা হয়েছে জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন দুই মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা এবং মেহবুবা মুফতিকে। এছাড়া কংগ্রেস নেতা উসমান মজিদ এবং সিপিএম বিধায়ক এমওয়াই তারিগামিকেও রাতে আটক করা হয়েছে বলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে।

এবারের লোকসভা নির্বাচনে লাদাখে জয় পেয়েছে বিজেপি। সেখানকার বিজেপি সাংসদ জামইয়াং সেরিং নামগিয়ালও কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি দাবি করেছেন, এতদিন জম্মু কাশ্মীর সরকারের উদাসীনতা এবং পক্ষপাতিত্বের শিকার হতো লাদাখ। কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তে তার অবসান হল।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে