Alexa ভাইয়ের টাকা পরিশোধ করতে ভাতিজাকে অপহরণ

ভাইয়ের টাকা পরিশোধ করতে ভাতিজাকে অপহরণ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:৪৮ ১১ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৮:৫৩ ১১ নভেম্বর ২০১৯

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

শরীয়তপুরের জাজিরায় আপন ভাইয়ের পাওনা টাকা পরিশোধ করতে ভাতিজাকে অপহরণ করেছেন চাচা শিপন ও তার সহকারী। পুলিশ এই ঘটনায় অভিযুক্ত তিন অপহরণকারীকে আটক ও অপহৃতকে উদ্ধার করেছে। 

সোমবার সকালে ঢাকার কামরাঙ্গীরচর থেকে অপহৃতসহ অপহরণকারীদের আটক করা হয়। 

অপহৃত আট বছরের শিশু মাহিন জাজিরা থানার সেনেরচর দক্ষিণ কান্দি গ্রামের প্রবাসী মো. রিপন মৃধার ছেলে। আটক অপহরণকারী শিপন মৃধার আপন ছোট ভাই। অপর অপহরণকারী রুবেল মোল্লা জাজিরা উপজেলার বড় কান্দী ইউপির কুড়ি টেক্কারচর গ্রামের রাজ্জাক মোল্লার ছেলে ও আলামিন হাউদ সখিপুর থানার চরসিংহপুর আব্দুল খালেক হাউদের ছেলে।

জাজিরা থানার ওসি বেলায়েত হোসেন বলেন, গত শনিবার সকালে মাহিন সেনেরচর দক্ষিণ কান্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার সময় তার আপন চাচা শিপন শিশুটির মামা অসুস্থ বলে নিয়ে যায়। চাচা শিপন তার ভাতিজা মাহিনকে  তার মামা বাড়ি না নিয়ে অপহরণকারী রুবেল মোল্লা ও আলামিন হাউদের কাছে দিয়ে দেয়। ওই দিন সন্ধ্যায় অপহৃত শিশুর মায়ের কাছে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। পরে শিশুর মা জাজিরা থানায় একটি অভিযোগ করেন। পরে জাজিরা থানা পুলিশ শিপনকে সন্দেহ করে আটক করে। শিপনের স্বীকারোক্তিতে কামরাঙ্গীরচর থেকে মাহিনকে উদ্ধার ও অপহরণকারীদের আটক করা হয়।

মাহিনের বাবা প্রবাসী মো. রিপন মৃধা তার আপন ছোট ভাই শিপনকে বিদেশ যেতে ২০ হাজার টাকা দেয়। শিপন দেশে আসলে রিপন তার কাছে ২ লাখ টাকা পাবে বলে দাবি করে। এই ঘটনার জের ধরে আপন ভাইয়ের পাওনা টাকা পরিশোধ করতে ভাতিজাকে অপহরণ করেন চাচা শিপন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ