ভরসা একমাত্র বাঁশের সাঁকো

ভরসা একমাত্র বাঁশের সাঁকো

আসহাবুর ইসলাম শাওন, কমলগঞ্জ  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৪৮ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১২:৪৯ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ পৌরসভাধীন ও সদর ইউপির সঙ্গে যোগাযোগের জন্য ধলাই নদীতে সেতুর অভাবে ২০ থেকে ২৫টি গ্রামের হাজারো মানুষের যাতায়াতের একমাত্র ভরসা হচ্ছে বাঁশের সাঁকো। 

বাঁশের তৈরি সাঁকোর ওপর দিয়েই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্কুল-কলেজ ও মাদরাসার ছাত্র সহ বৃদ্ধ-বৃদ্ধা গর্ভবতী নারী অসুস্থ রোগী যাতায়াত করে। 

কমলগঞ্জ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড করিমপুর গোপালনগর খেয়াঘাট হয়ে সদর ইউপির সঙ্গে এই সড়কের যোগাযোগ। মধ্য জায়গায় বড় বাঁধা হচ্ছে ধলাই নদী। 

রামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিকটে এই বাঁশের সাঁকোটি অবস্থান। যার ফলে ইউনিয়ন হতে পৌরসভায় এবং পৌরসভা হতে ইউনিয়নে যেতে হলে এ সাঁকো ব্যবহার ছাড়া পৌঁছা সম্ভব নয়। 

এছাড়াও মৌলভীবাজার সদর শহরে লোকজন পৌঁছাতে হলে ছয় থেকে নয় কিলোমিটার রাস্তা ঘুরে যেতে হচ্ছে। সরই বাড়ী, রামপুর, রামপাশা, ছাইয়াখালি, চৈতন্যগঞ্জ, নারায়ণপুর, বনগাঁও, বাদে উবাহাটা গ্রামগুলো ছাড়া আরো ১০ থেকে ২০ টি গ্রামের লোকজন এ সাঁকোটি ব্যবহার করেন। 

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে খেয়াঘাটে একটি সেতু নির্মাণের দাবি জানালেও দাবিটি বার বারই উপেক্ষিত। 

স্থানীয় বাসিন্দারা আরো জানান, সাবেক এমপি মুক্তিযোদ্ধা ড. উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এমপি এলাকাবাসীকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ব্রিজ নির্মাণ করা হবে এলাকাবাসীর যাতায়াতের সুবিধার্থে।  

স্থানীয়রা বাসিন্দাদের সঙ্গে আলাপ করলে তারা আরো জানান, বাজার করে দোকানির মালামাল, কৃষি যন্ত্রপাতি পারাপারে ভোগান্তি পোহাতে হয়। 

পৌর কাউন্সিলর যুবলীগ নেতা দেওয়ান আব্দুর রহিম মুহিন বলেন, একটি ব্রিজ নির্মাণের জন্য এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে স্থানীয় প্রশাসন ও ডিসিকে জানানো হয়েছে। 

স্থানীয় চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান বলেন, এ স্থানে একটি ব্রিজ নির্মাণের দাবি এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের। এখানে একটি সেতু বা ব্রিজ নির্মাণ করা হলে কমলগঞ্জ পৌরসভার সঙ্গে সদর ইউপির যোগাযোগের একটি সেতু বন্ধন তৈরি হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে