বৈরুতে বিস্ফোরণের পর বন্দর কর্মকর্তাদের গৃহবন্দির নির্দেশ

বৈরুতে বিস্ফোরণের পর বন্দর কর্মকর্তাদের গৃহবন্দির নির্দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:০৬ ৬ আগস্ট ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে বিস্ফোরণের কারণ শতভাগ নিশ্চিত না হলেও ধারণা করা হচ্ছে বন্দরের গুদামে অরক্ষিত অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটকে দায়ী করা হচ্ছে। এসব বিস্ফোরক দ্রব্য যারা রেখেছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার। তদন্ত কমিটির রিপোর্ট হাতে পাওয়া পর্যন্ত বন্দর কর্মকর্তাদের গৃহবন্দি রাখার নির্দেশ দিয়েছে লেবানিজ মন্ত্রিপরিষদ। জরুরি সভা শেষে লেবাননের মন্ত্রিসভা সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর দিয়েছে।

সন্দেহ করা হচ্ছে, এসব কর্মকর্তার অবহেলার কারণে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের গুদামে বিস্ফোরণ ঘটেছে। তবে কতজন কর্মকর্তাকে গৃহবন্দি রাখা হবে কিংবা তাদের পদমর্যাদা কী তা স্পষ্ট নয়।

লেবাননের তথ্যমন্ত্রী মানাল আব্দেল সামাদ সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানান, মঙ্গলবারের বিস্ফোরণের ক্ষেত্রে এ সমস্ত কর্মকর্তার দায়-দায়িত্ব চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত তারা সেনাবাহিনীর নজরদারিতে থাকবেন।

বিস্ফোরণে লেবাননের সবচেয়ে বড় খাদ্যগুদাম ধ্বংস হয়ে গেছে। বিস্ফোরণে এখন পর্যন্ত ১৩৫ জনের নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন লেবাননের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ হাসান।

এই বিস্ফোরণের ফলে সৃষ্ট কম্পন সুদূর সাইপ্রাস থেকে অনুভূত হয়েছে এবং বৈরুত বন্দরের বিস্তীর্ণ এলাকার ঘর-বাড়ি, কলকারখানা এবং সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন রকম ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে। এছাড়া প্রায় তিন লাখ মানুষ ঘরবাড়ি হারা হয়েছে।

লেবাননের মন্ত্রিসভা এরইমধ্যে বৈরুত বন্দরে দুই সপ্তাহের রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। লেবানন সরকার বিস্ফোরণের ঘটনা নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ