বৈরুতে তিন দিনের শোক, জারি হচ্ছে জরুরি অবস্থা

বৈরুতে তিন দিনের শোক, জারি হচ্ছে জরুরি অবস্থা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:৫৭ ৫ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৪:২৬ ৫ আগস্ট ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ দুটি বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৭৮ জন নিহত ও চার হাজারেরও বেশি লোক আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যার পরে ভয়াবহ এই বিস্ফোরণ ঘটে।

এদিকে, বিস্ফোরণে হতাহতদের প্রতি শোক ও শ্রদ্ধা জানাতে দেশটিতে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালনের ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, পুরো শহর যখন পরপর কয়েকটি বিস্ফোরণে প্রকম্পিত, তখন শহরের বাসিন্দারা ভূমিকম্প মনে করে ছোটাছুটি শুরু করে। 

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার সংগৃহীত উপাত্ত বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, বৈরুতে বিস্ফোরণ এতটাই শক্তিশালী ছিল যে তা ৩ দশমিক ৩ মাত্রার ভূমিকম্পের সমান।

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, বৈরুর বন্দরে একটি ওয়ার হাউজে অরক্ষিত অবস্থায় ২৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুদ ছিল। সেখান থেকে বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।

তবে দেশটির প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন বলছেন, গুদামে ২ হাজার ৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের মত বিস্ফোরক অনিরাপদ অবস্থায় মজুত রাখার বিষয়টি 'অগ্রহণযোগ্য'।

এদিকে ভয়াবহ এ বিস্ফোরণের ঘটনায় জরুরি কেবিনেট বৈঠক ডাকা হয়েছে। সেখান থেকে ২ সপ্তাহের জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা আসতে পারে।

এরইমধ্যে প্রেসিডেন্ট মিশেল সরকারের পক্ষ থেকে জরুরি সহায়তা হিসেবে ১০০ মিলিয়ন লিরা ছাড় দিয়েছে।

মঙ্গলবারের এ ভয়াবহ বিস্ফোরণের কারণ জানতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে সরকার। পাঁচ দিনের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন জমা দিতে হবে। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাতে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, বন্দরের কাছে অরক্ষিত অবস্থায় সংরক্ষিত থাকা অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট থেকে বিস্ফোরণের সূত্রপাত।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ/টিআরএইচ