বেল্ট খুলতে বলায় প্যান্ট খুলে ফেললেন ইউএস-বাংলার কেবিন ক্রু!

বেল্ট খুলতে বলায় প্যান্ট খুলে ফেললেন ইউএস-বাংলার কেবিন ক্রু!

ডেস্ক নিউজ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২১:০২ ১২ জুন ২০১৯   আপডেট: ২১:০৮ ১২ জুন ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সিকিউরিটি চেকিংয়ে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের এক সিনিয়র কেবিন ক্রুকে বেল্ট খুলতে বলায় জামা-প্যান্ট খুলে ফেলেন। এ ঘটনায় প্রত্যক্ষদর্শীরা হতবাক হয়ে যান।

বুধবার বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনালে প্রি-বোর্ডিং চেকিং গেটে এ ঘটনা ঘটান ওই এয়ারলাইনসের কেবিন ক্রু মো. শাহফিকুর রহমান।

বিমানবন্দর সূত্র জানায়, সকাল ১১টার দিকে বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনালে প্রি-বোর্ডিং চেকিং গেটে শাহফিকুর রহমানকে আর্চওয়ের মাধ্যমে প্রবেশের অনুরোধ জানান দায়িত্বরত আনসার সদস্য। নিয়মানুযায়ী মোবাইল ফোন, মানিব্যাগ, কোট, ঘড়ি, জুতা খুলে এক্স-রে মেশিনে স্ক্রিনিংয়ের জন্য ট্রেতে রাখেন তিনি। তাকে কোমরের বেল্ট খুলে ট্রেতে রাখতে বলা হয়। তখনই উত্তেজিত হয়ে শাহফিকুর রহমান জামা ও প্যান্ট খুলে ফেলেন! এ সময় নিরাপত্তাকর্মীদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন তিনি। পরে তাকে বিমানবন্দরের এভিয়েশন সিকিউরিটির সদস্যদের হেফাজতে নেয়া হয়। শেষমেষ মুচলেকা দিয়ে তাকে ছাড়িয়ে নেয় ইউএস-বাংলা কর্তৃপক্ষ।

বিমানবন্দরের এভিয়েশন সিকিউরিটির একজন কর্মকর্তা বলেন, কোনো অনুমতি ছাড়াই শিক্ষানবীশ ক্রুদের তল্লাশি ছাড়াই বিমানবন্দরে প্রবেশ করিয়েছে ইউএস-বাংলা। তাদের মধ্যে একজন তল্লাশির সময় অসদাচারণ করেছেন। ইউএস-বাংলার ফ্লাইট অপারেশনের পরিচালক মুচলেকা দিয়ে তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে গেছেন। তিনি আশ্বস্ত করেছেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না। 

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের এমডি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ওই কেবিন ক্রু’র প্যান্টের ভেতর আরেকটি থ্রি কোয়ার্টার প্যান্ট ছিল। আর্চওয়েতে বেল্ট খোলার পরও ধাতব বস্তু থাকার শব্দ হচ্ছিল। তখন আনসার সদস্যদের তিনি জানান, থ্রি কোয়ার্টার প্যান্টের বাটনের কারণে শব্দ হতে পারে। তখন আনসার সদস্যরা তাকে প্যান্ট খুলে থ্রি কোয়ার্টার প্যান্ট দেখাতে বলেন। এ কারণেই তিনি প্যান্ট খুলে দেখিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, আনসার সদস্যদের আচরণে আমাদের কেবিন ক্রু বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েন, তখন রাগ দেখিয়ে তিনি কিছু কথা বলেন। পরবর্তী সময়ে আমাদের প্রতিনিধি ও এভসেকের প্রতিনিধিরা বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন। তারা এ নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

ইউএস-বাংলার এমডির দাবি, কেবিন ক্রুদের প্রবেশে আলাদাভাবে অনুমতি লাগে না। তাদের পোশাক ও আইডি কার্ড সঙ্গে থাকলেই হয়। আগেও কখন অনুমতির প্রয়োজন হয়নি। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে