Alexa বেতন না দেয়ায় চুরি, গলায় জুতার মালা!

বেতন না দেয়ায় চুরি, গলায় জুতার মালা!

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৩১ ২০ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২০:০২ ২০ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

লক্ষ্মীপুরে চুরির দায়ে বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে এক কিশোরকে মারধরের পর গলায় ঝাড়ু-জুতার মালা পরানোর অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনার একটি ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর গণমাধ্যম কর্মীদের নজরে আসে। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে পৌরশহরের ২ নম্বর ওয়ার্ডের জালালিয়া মাদরাসা এলাকায়।

আহত নিরব হোসেন ওই এলাকার কিরন হোসেনের ছেলে। তিনি একটি চামড়ার দোকানে কাজ করতেন। তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার সদর থানায় একটি অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীর নানি। তিনি জানান, শনিবার বিকেলে দোকান থেকে টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে তার নাতিকে বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে মারধর করেন দোকানের মালিক রাশেদ। পরে গলায় ঝাড়ু ও জুতার মালা পরিয়ে এলাকায় ঘোরানো হয়। নির্যাতনের পর তাকে থানায় সোপর্দ করা হয়।

তিনি আরো জানান, পুলিশের কাছ থেকে তাকে ছাড়িয়ে এনে দোকানের মালিক সালিশের আয়োজন করেন। এতে স্থানীয় কাউন্সিলররা নিরবের ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। কিন্তু অসহায় হওয়ায় নানা-নানি তার জিম্মাদার হতে রাজি হননি। এতে হট্টগোল শুরু হলে ফের মারধর করা হয়। রোববার রাতে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, ছয় মাস ধরে রাশেদের চামড়ার দোকানে কাজ করতেন নিরব। পারিশ্রমিক পান না বলে তার অভিযোগ। টাকা চাইলেও দিতেন না দোকানের মালিক রাশেদ। তাই বাধ্য হয়ে মালিকের অগোচরে নিজের পাওনা টাকাই নেন বলে দাবি ওই কিশোরের।

দোকানের মালিক রাশেদ বলেন, চুরি করে মূলধন আত্মসাৎ করায় আমিসহ এলাকাবাসী নিরবকে শাস্তি হিসেবে ঝাড়ু ও জুতার মালা পরিয়ে দেই। পরে সালিশে তার ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এদিকে ঝাড়ু ও জুতার মালা পরানোর বিষয়ে জানেন না বলে দায় এড়াতে চান কাউন্সিলর শিপন ও সালিশদার ইসমাইল।

সদর থানার ওসি (তদন্ত) মোছলেহ উদ্দিন জানান, নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযান চালিয়ে দোকানের মালিক রাশেদ ও ইসমাইল হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর