বেতন চাওয়ায় বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী দোকান কর্মচারীকে খুন্তির ছ্যাঁকা

বেতন চাওয়ায় বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী দোকান কর্মচারীকে খুন্তির ছ্যাঁকা

ফরিদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:০৩ ৩০ মে ২০২০   আপডেট: ২০:০৪ ৩০ মে ২০২০

বেতন চাওয়ায় বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী দোকান কর্মচারীকে খুন্তির ছ্যাঁকা

বেতন চাওয়ায় বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী দোকান কর্মচারীকে খুন্তির ছ্যাঁকা

ফরিদপুরের মধুখালী মরিচ বাজারে বেতন চাওয়ায় এক বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী দোকান কর্মচারীকে খুন্তির ছ্যাঁকা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে মালিকের বিরুদ্ধে। শুক্রবার বিকেল ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। 

আহত ওই কর্মচারী তাপসকে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ফরিদপুরের এসপি আলিমুজ্জামান (পিপিএম সেবা) আহত তাপসকে দেখতে শনিবার দুপুরে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। 

জানা গেছে, বোয়ালমারী উপজেলার ঘোষপুর ইউপির কান্দাকুল গ্রামের বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী তাপস প্রায় ১ বছর ধরে মরিচ বাজারের বিপ্লব সাহার চা ও মুদি দোকানে কাজ করে আসছে। বিনিময়ে তাকে শুধু খাবারই দেয়া হতো। তাপস মালিকের কাছে বেতন চাইলে শুক্রবার সকালে তাকে মারধর করা হয়। এরপর সন্ধা ৬টার দিকে গরম খুন্তি ও স্টিলের গরম পাইপ দিয়ে তাপসের ঘাড়, হাত ও পিঠ পুড়িয়ে দেয়া হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

খবর পেয়ে সন্ধা সাড়ে ৬টার দিকে পুলিশ বিপ্লব সাহার বাবা বিমল সাহা ও তার ছোট ছেলে পলাশকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। রাতে তাপসকে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।  

মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. কবির সরদার জানান, হাসপাতালে ভর্তির পর তাপসের হঠাৎ রক্তক্ষরণ হয়। শনিবার সকালে তাকে রক্ত দেয়া হয়েছে।   

মধুখালী থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রথীন্দ্রনাথ জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে দুজনকে আটক করা হয়েছে। দুপুরে ফরিদপুরের এসপি মো. আলিমুজ্জামান হাসপাতালে তাপসকে দেখতে যান।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ