বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ছাড়ার আনুষ্ঠানিকতা শুরু যুক্তরাষ্ট্রের

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ছাড়ার আনুষ্ঠানিকতা শুরু যুক্তরাষ্ট্রের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:২৯ ৮ জুলাই ২০২০  

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (ছবি: সংগৃহীত)

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (ছবি: সংগৃহীত)

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ছাড়ার আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে বেশ কিছু আন্তর্জাতিক চুক্তি ও বিভিন্ন সংস্থা থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে এনেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মঙ্গলবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানান, ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বেরিয়ে যাওয়ার বিষয়ে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্থনিও গুতেরেসের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

জাতিসংঘ মহাসচিবের এক মুখপাত্র ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকেও যুক্তরাষ্ট্রের নোটিশ পাওয়ার কথা নিশ্চিত করা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রস অ্যাধনম গেব্রিয়াসেস করোনাভাইরাস সাধারণ শত্রু হিসেবে উল্লেখ করে বলেছেন, তা মোকাবিলায় জাতীয় ঐক্য ও বৈশ্বিক সংহতি যে কোনো সময়ের চেয়ে এখন বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আনুষ্ঠানিক নোটিশ দিলেও সংস্থাটি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের পুরোপুরি বেরিয়ে যেতে এক বছর সময় লাগবে। ২০২১ সালের ৬ জুলাই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে বেরিয়ে যাবে যুক্তরাষ্ট্র।

মহামারি করোনাভাইরাস নিয়ে চীনের পক্ষপাতিত্ব করায় আগেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (ডব্লিউএইচও) অর্থ সাহায্য বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। আরো এক ধাপ এগিয়ে মে মাসের শেষ দিকে তাদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দেয় তারা। জাতিসংঘের সংস্থাকে অভ্যন্তরীণ সংস্কারের প্রস্তাব দেয়ার পর তাতে সাড়া না পাওয়ায় এ পদক্ষেপের কথা জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

মের শুরুতে চীনের ওপর নির্ভরতা কাটিয়ে উঠতে ডব্লিউএইচওকে একাধিক অভ্যন্তরীণ সংস্কার আনার আল্টিমেটাম দেন ট্রাম্প। কিন্তু সংস্থাটি তা আমলে নেয়নি বলেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট। তার দাবি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অভ্যন্তরীণ সংস্কারে চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়েছে এবং চীনা নির্ভরতা কাটাতে পারেনি। এ কারণে সম্পর্ক ছিন্ন করার মতো কঠোর পদক্ষেপ নিতে হলো।

প্রতিষ্ঠানকে এতদিন ধরে দেয়া বার্ষিক ৪৫ কোটি ডলার এখন থেকে অন্য সংস্থার মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে জরুরি স্বাস্থ্য প্রকল্পে ব্যয় করা হবে জানিয়েছিলেন ট্রাম্প। ওই ঘোষণার এক মাসেরও বেশি সময় পর আনুষ্ঠানিকভাবে নাম প্রত্যাহার করে নিল যুক্তরাষ্ট্র।

সূত্র: সিএনএন

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ