Alexa বিশ্বকাপে ২৫ রানে ৬ উইকেট ক্যারিয়ার সেরা মূহুর্ত: ভাস

এক ওভারে ৪ উইকেট 

বিশ্বকাপে ২৫ রানে ৬ উইকেট ক্যারিয়ার সেরা মূহুর্ত: ভাস

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৪৪ ২৩ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ১৫:০৫ ২৩ আগস্ট ২০১৯

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

দক্ষিণ আফ্রিকার সিটি ওভালের মাঠে ২০০৩ সালের বিশ্বকাপ। বাংলাদেশের বিপক্ষে এক ওভারে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন শ্রীলংকার কিংবদন্তি সাবেক পেসার চামিন্দা ভাস। সবমিলিয়ে ২৫ রানে ৬ উইকেট লঙ্কান বোলারদের মধ্যে এখনো বিশ্বকাপের সেরা পারফর্মার তিনিই। তবে এক ওভারে ৪ উইকেট প্রাপ্তি ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা মূহুর্ত বলে মনে করেন সাবেক এ পেসার।

এখন নিজেকে জাতীয় দলের কোচ হিসেবে দেখা চূড়ান্ত লক্ষ্য এ লঙ্কান গ্রেটের। শ্রীলংকার সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বৈরথকে ইতিবাচক হিসেবে নিতে চান ভাস।

শ্রীলংকার ক্রিকেটে সর্বকালের সেরা পেসার কে? বিতর্ক হতে পারে লাসিথ মালিঙ্গা ও চামিন্দা ভাসকে নিয়ে। কিন্তু ক্রিকেটের দু এলিট ফরম্যাটেই স্বাচ্ছন্দ্য বিচরণ, ওয়ানডেতে চারশো, টেস্টে সাড়ে তিনশতাধিক উইকেট সঙ্গে ১৫ বছররে সুদীর্ঘ ক্যারিয়ার সেরাদের সেরার আসনে বসিয়েছে ভাসকে। 

অভিষেক বিশ্বকাপে শিরোপা ২০০৭ সালে সবশেষ টায় রানার্স আপ দলের সারথী এ পেসার। 

শ্রীলংকার সাবেক পেসার চামিন্দা ভাস জানান, বাংলাদেশের ওই ম্যাচটা নিঃসন্দেহে আলাদা। উইকেট থেকে দারুন সুবিধা পেয়েছিলাম। ক্যারিয়ার জুড়ে অনেক গুলো ঘটনা মনে পড়ে। তবে প্রথম ওভারটা আমার জন্য স্পেশাল। তবে ব্যক্তিগত অর্জনের চেয়ে জয়ে ভূমিকা রাখতে পারায় বেশি খুশি হয়েছিলাম।

সোনালী অতীতকে পেছনে ফেলে লঙ্কান ইমার্জিং দলের কোচের ভূমিকায় এখন চামিন্দা ভাস। ক্রিকেটার জীবনে সফল ভাস কোচিংয়েও আলো ছড়াতে চান। তবে এ পেসারের স্বপ্ন শুধুই নিজ দেশকে নিয়ে।

শ্রীলংকার বয়স ভিত্তিক দল নিয়ে কাজ করেছি। জাতীয় দলের বোলিং কোচের দায়িত্বেও ছিলাম। কোচিংয়ে আমার লক্ষ্যটা পরিষ্কার। জাতীয় দলের কোচ হওয়া আর দলকে সাফল্যের চূড়ায় দেখা সাম্প্রতিক সময়ে দ্বৈরথে রূপ নিয়েছে বাংলাদেশ-শ্রীলংকা ম্যাচ। যার শুরুটা নিদাহাস ট্রফি থেকে। যাকে ইতিবাচক হিসেবে নিতে চান ভাস।

ক্রিকেটে প্রতিদ্বন্দিতা, কথার লড়াই আলাদা মাত্র যোগ করে। তবে সেটা যেনো বিষবাষ্প না ছড়ায় সেদিকে লক্ষ্য রাখা প্রয়োজন। বাংলাদেশ এশিয়ার অন্যতম শক্তিশালী দলে পরিনত হয়েছে। এতে করে উত্তেজনা, রোমাঞ্চ বেড়েছে।

দেশের ক্রিকেটের আরো উন্নতিতে তৃণমূলে জোর দেয়ার পরামর্শ এ লঙ্কান ক্রিকেটারের।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে