বিশেষ বিপিএলে নেই ‘প্রাইজমানি’

বিশেষ বিপিএলে নেই ‘প্রাইজমানি’

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২৩:৫৪ ১৬ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২৩:৫৭ ১৬ জানুয়ারি ২০২০

ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগ মানেই অর্থের ঝনঝনানি। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগও (বিপিএল)ব্যতিক্রম ছিল না! কিন্তু বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এবার ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে বাদ দিয়ে বিসিবি নিজেরাই বঙ্গবন্ধুর নামে বিশেষ বিপিএল আয়োজন করেছে। আর তাই এবার চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলের জন্য কোনো প্রাইজমানি রাখেনি বিপিএল আয়োজক কমিটি। চ্যাম্পিয়ন দলকে শুধু বিশেষ ট্রফি নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হবে।

জমকালো উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর নামে বিশেষ এ বিপিএল।  বিশেষ বিপিএল হওয়ায় ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক ছিল কম। এমনকি শেষ পর্যন্ত জাতির জনকের নামের টুর্নামেন্টে রাখা হয়েছে শুধু বিশেষ চ্যাম্পিয়ন ট্রফিতে নেই কোনো প্রাইজমানি।

শুক্রবার ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে বিপিএল এর সপ্তম আসরের। সন্ধ্যা ৭টায় মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে খুলনা টাইগার্স ও রাজশাহী রয়্যালস।

বৃহস্পতিবার  দুই দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ও আন্দ্রে রাসেল বিপিএলের বিশেষ সোনালি রঙের ট্রফি উন্মোচন করেন। ইয়ংকারম্যানের বানানো ট্রফিটি এসেছে ইংল্যান্ড থেকে।

আগের ছয় আসরেই ট্রফির পাশাপাশি প্রাইজমানি ছিল। এবার  থাকছে শুধু ট্রফি। আর রানার্সআপ দল বিপিএল শেষ করবে শূন্য হাতে। দলগুলোর পরিচালনাভার বিসিবির হাতেই ছিল বলে প্রাইজমানি দেয়া হচ্ছে না বলে জানা গেছে। যদিও ফ্র্যাঞ্চাইগুলোর অবর্তমানে প্রতিটি দলেরই ছিল স্পনসর। কিন্তু বিপিএলের দলগুলোকে বিসিবি নিজেদের দল দাবি করে প্রাইজমানি দিচ্ছে না।

এ প্রসঙ্গে বিপিএলের সমন্বয়ক সাইফুল মানব বলেন, এবার কোনো প্রাইজমানি দেয়া হবে না।  সবগুলো দলই তো বোর্ডের। বোর্ড দলগুলো চালাচ্ছে। শুধু দল পরিচালনার জন্য স্পনসর নেয়া হয়েছে। তাই প্রাইজমানি থাকছে না।

শুধু প্রাইজমানিই নয়, ফাইনালে ম্যাচসেরার পুরস্কারের অর্থও বাড়ছে না । বিপিএলের প্রতি ম্যাচে ম্যাচসেরার পুরস্কার হিসেবে দেয়া হচ্ছে ৫০০ ডলার। ফাইনালেও একই অঙ্কের অর্থ পুরস্কার থাকছে ম্যাচসেরা খেলোয়াড়ের জন্য। 

টুর্নামেন্টসেরার পুরস্কার এক হাজার ডলার, সঙ্গে টিভিএস কোম্পানির মোটরবাইক।

গতবার চ্যাম্পিয়ন দল পেয়েছিল দুই কোটি টাকা। রানার্সআপ দল ৭৫ লাখ টাকা। ফাইনালের ম্যাচসেরা ক্রিকেটার পেয়েছিলেন দুই হাজার ডলার।  আর টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় পেয়েছিলেন ৫ হাজার ডলার।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস/আরএ