Alexa বিরোধী দলীয় নেতার আসনে কাদের না রওশন?

বিরোধী দলীয় নেতার আসনে কাদের না রওশন?

নিউজ ডেস্ক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:১২ ১৮ জুলাই ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মাদ এরশাদের মৃত্যুতে তার সংসদীয় আসনটি শূন্য হওয়ার পাশাপাশি সংসদের বিরোধীদলীয় নেতার আসনটিও শূন্য হয়েছে। 

তার মৃত্যুতে কে বসছেন এই চেয়ারে তা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি গুঞ্জন শুরু হয়েছে জাতীয় পার্টিতে।

তবে নিজেরা নেতা নির্বাচনে পর তাকিয়ে থাকতে হবে সরকারের মনোভবের দিকে। তবে মূলকাজটা জাতীয় পার্টির নেতাদেরই করতে হবে।  

দলটির কয়েকজন নেতা জানান, চেয়ারম্যানের মৃত্যুর পর আনুষাঙ্গিক অনেক বিষয় আছে সেগুলো শেষ করতে কিছুদিন সময় লাগবে। এরপর দলের আলোচনা সভায় এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

গত ১৪ জুলাই রাজধানীর সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা হুসেইন মুহম্মাদ এরশাদ। গত রোববার গুলশানে তার কুলখানি অনুষ্ঠিত হয়। 

এরশাদের অবর্তমানে জাতীয় পার্টিতে দুটি ভাগ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এক পক্ষ্য মনে করছেন, এরশাদের অবর্তমানে দলের দায়িত্ব নেয়ার মত যোগ্যতা ও মানসিক ভারসাম্য একমাত্র রওশন এরশাদেরই আছে। 

এ পক্ষের দাবি, এর আগেও রওশন এরশাদ দলের প্রধানের নেতৃত্বে বিগত সরকারের সময় বিরোধীদলীয় নেতার দায়িত্ব পালন করেছেন এবং তাকে প্রতিটি বিষয়ে এরশাদ গুরুত্ব দিয়ে এসেছেন। তাই তিনিই বিরোধীদলীয় নেতা হওয়ার যোগ্য। 

পাশাপাশি রওশনের সঙ্গে তুলনা করতে গিয়ে জি এম কাদেরের অভিজ্ঞতা কম বলেও দাবি এ পক্ষটির। এছাড়া, ২০০৯ থেকে ২০১৩ সালের মহাজোট সরকারের সময় জি এম কাদেরকে নিয়ে বেশ দ্বিধাদ্বন্দ্বে ছিল দলটি। 

একাধিক প্রেসিডিয়াম সদস্য গণমাধ্যমকে জানান, দলের একতা ও ঐক্য ধরে রাখতে হলে রওশনের বিকল্প নেই। তাদের যুক্তি পার্টি কে চালাবেন সেটা বড় কথা নয়, দল চালানোর সক্ষমতা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। 

প্রায় দু’বছর ধরে দলের দায়িত্ব পালন না করেও দলের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে ছিলেন এরশাদ। এছাড়া দলের ও পরিবারের সিনিয়রের দিক থেকেও রওশনই ভরসা রাখতে চান তারা। 

অন্যদিকে রওশনের অনুসারী তথা রওশনের পক্ষে নেয়া নেতাদের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে দলটির একাধিক নেতা জানান, এরশাদ মারা যাওয়ার আগেই তার ছোটভাই জি এম কাদেরকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দিয়ে গেছেন। এমনকি তার অনুপস্থিতিতে কাদেরকে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেয়া হয়। 

তারা বলেন, চলতি বছরের ২৩ মার্চ পার্টির কো-চেয়ারম্যানের পদ থেকে কাদেরকে সরিয়ে রওশন এরশাদকে দায়িত্ব দেয়া হয় এবং জি এম কাদেরকে করা হয় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। তাই বলাই যায়, রওশন নয়, কাদেরই হবেন বিরোধীদলের নেতা। 

জানতে চাইলে দলটির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা গণমাধ্যমকে জানান, এ বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। খুব শীঘ্রই এ ব্যাপারে বৈঠক বসবে। সেখানেই নির্ধারণ হবে কে বিরোধীদলের নেতা হবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ 

Best Electronics
Best Electronics