Alexa বিদেশ নয় এদেশেই রয়েছে উল্টো ঘর, যার সবকিছুই উলটপালট

বিদেশ নয় এদেশেই রয়েছে উল্টো ঘর, যার সবকিছুই উলটপালট

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:০১ ৯ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ১২:০৭ ৯ জুলাই ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

এ যেন আশ্চর্যজনক এক বিষয়! ঘরের মধ্য উল্টো সব আসবাবপত্র এমনকি মানুষও উল্টো হয়েই চলাফেরা করছে। আসলে এই পুরো ব্যাপারটাই উল্টো। কারণ এ বাড়ির ছাদ নিচে আর মেঝে উপরে। ফলে বাড়ির ভেতরে আপনি সোজা হয়ে দাঁড়ালেই মনে হবে আপনি সিলিংয়ে পা রেখে মেঝের দিকে মাথা করে দাঁড়ানো! এমন ব্যতিক্রমী স্থাপত্যশৈলী ও আসবাবের বিন্যাসে সাজানো হয়েছে লালমাটিয়ার ‘আপসাইড ডাউন হাউস’। দর্শনার্থীরা সব কিছুই উল্টো করে দেখার মজার অভিজ্ঞতা পান। 

এ যেন বিভ্রমের জগৎ। মজারও বটে। সাতটি সুপরিসর কক্ষে থাকা নানান আসবাব ছাদ থেকে উল্টো হয়ে ঝুলছে। কক্ষগুলোর স্থাপত্যশৈলী ও আসবাবের অবস্থান এমনই অদ্ভুত যে কায়দা করে এগুলোর সঙ্গে তোলা ছবি উল্টো করে ধরলেই মনে হবে লোকজন যেন হাওয়ায় ভাসছে। এমন ব্যতিক্রমী অন্দরসজ্জা নিয়েই ‘আপসাইড ডাউন হাউস’ এর   যাত্রা শুরু হয়ে গত মাসে। অবস্থান লালমাটিয়ার সি ব্লকে, মিনার মসজিদের পূর্ব পাশে ২/৬ নম্বর ভবনের নিচতলায়।

যদিও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আপসাইড ডাউন হাউস আছে। এটি হলো অদ্ভুত ছবি তোলার স্পট। মেঝের পরিবর্তে এখানে ঢুকলে দেখা যায় আসবাবসহ সবকিছু সিলিংয়ে! সেজন্য পর্যটকরা এসব বাড়িতে ভীড় করেন। 
আপসাইড ডাউনে ত্রিমাত্রিক আলোকচিত্রের মাধ্যমে ঘরবাড়ির প্রয়োজনীয় সবকিছু সাজানো হয়েছে। সবই মাথার ওপরে ঝুলছে মনে হবে! স্বাভাবিকভাবেই এখানকার চিত্তবিনোদন কিছুটা অদ্ভুত। এখানে ছবি তোলার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেটি পোস্ট করলে যে কেউ তাজ্জব বনে যাবে!

তিন হাজার বর্গফুটের বেশি আয়তনের এই ‘ইলিউশনাল আর্ট গ্যালারি’ সাজানো হয়েছে ভিন্ন স্বাদ দেয়ার জন্য। জানা গেছে, এই গ্যালারি প্রতিষ্ঠার উদ্যোক্তা চার তরুণ- আবদুল্লাহ আল মাহবুব, শাফি আহমেদ, ইশতিয়াক মাহমুদ ও আসিফুর রহমান। মানুষকে অভিনব কিছুর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতেই তাদের এই আয়োজন। সেখানে দর্শনার্থীদের গ্যালারি ঘুরিয়ে দেখানো এবং ছবি তোলার কাজে সহযোগিতার জন্য সাতজন লোক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তারা প্রত্যেকে পেশাদার আলোকচিত্রী। দর্শনার্থীদের ছবি তোলার বিভিন্ন ভঙ্গি দেখিয়ে দেন তারা।

আপসাইড ডাউনে বড়দের প্রবেশমূল্য ৪০০ টাকা। ১০ বছরের নিচে শিশুদের টিকিটের দাম ২৫০ টাকা। আর তিন বছরের কম শিশুদের জন্য জায়গাটি ফ্রি। তবে ছবি তোলার জন্য আলাদা টাকা গুনতে হবে। পাঁচজনের দল কিংবা এর কম সদস্য হলে ৩০০ টাকা। আর পাঁচজনের বেশি হলে মজার সব ছবি তুলতে লাগবে ৫০০ টাকা। লালমাটিয়া মিনার মসজিদ ও স্বাদ তেহারি ঘরে মাঝামাঝি অবস্থিত আপসাইড ডাউন। প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকে এটি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস