Alexa বাসায় খাবার সরবরাহ করে ১১ রেস্তোরাঁর মালিক জয়ন্তী!

বাসায় খাবার সরবরাহ করে ১১ রেস্তোরাঁর মালিক জয়ন্তী!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৩৫ ৯ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ২০:১০ ৯ নভেম্বর ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পেশায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হলেও রান্নার প্রতি তার ছোটবেলা থেকেই প্রবল ঝোঁক। পেশা সূত্রেই গেলেন বিদেশে। শুরু করলেন ফুড ডেলিভারি। বর্তমানে ১১টি রেস্তোরাঁর মালিক।

বলা হচ্ছে বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা জয়ন্তী কাঠালের কথা। ছোটবেলায় তার যৌথ পরিবার হওয়ায় একসঙ্গে অনেকটা রান্না করতে হতো। তাই পরিবারের ছোট-বড় সবাই রান্নার কাজে হাত লাগাতেন। সে সময় থেকেই রান্নার হাতেখড়ি।

বিয়ের পর স্বামীর সঙ্গে বেঙ্গালুরুতে চলে যান জয়ন্তী। তবে তার হোম ডেলিভারি ব্যবসার শুরু হয় বিদেশে। অফিস থেকে ২০০৬ সালে জয়ন্তীকে অস্ট্রেলিয়ায় পাঠানো হয়। সেখানে খাওয়া-দাওয়া নিয়ে খুব সমস্যা পোহাতে হয়। তার অন্যান্য ভারতীয় সহকর্মীরাও একই সমস্যার কথা শোনাতেন। 

সেই থেকেই প্রথম হোম ডেলিভারির কথা মাথায় আসে জয়ন্তীর। অরকুটে নিজের একটা প্রোফাইল বানিয়ে তাতে নির্দিষ্ট মেনু লিখে খাবারের হোম ডেলিভারির জন্য অর্ডারের বিজ্ঞাপন দেন।

প্রথম দিন থেকেই দারুণ সারা পেতে শুরু করেন। বাড়ির খাবার বহু ভারতীয় সহকর্মী অর্ডার দেন। কর্মসূত্রে দুবছর অস্ট্রেলিয়ায় ছিলেন। এই দুবছরই হোম ডেলিভারি করেছেন জয়ন্তী। বিভিন্ন উত্সবে মারাঠি মিষ্টি বানিয়েও পাঠিয়েছেন।

এর দুবছর পর বেঙ্গালুরুতে ইনফোসিসের প্রজেক্ট ম্যানেজার হিসাবে যোগ দেন। প্রজেক্ট ম্যানেজার হওয়ার পাশাপাশি নিজের হোম ডেলিভারিও চালিয়ে যাচ্ছিলেন জয়ন্তী।

২০১২ সালে প্রথম বেঙ্গালুরুর এইচএসআর আউটলেটে রেস্তোঁরার শাখা খোলেন তিনি। পরে মুম্বাই, পুণে, অমরাবতীতেও তার ব্যবসা ছড়িয়ে পড়ে।

বর্তমানে ভারতে ছয়টা শাখা রয়েছে জয়ন্তীর। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেন, লন্ডন, টরন্টো, শিকাগোতেও তার রেস্তরাঁর শাখা রয়েছে। ছোট-বড় মিলিয়ে মোট ১১টা শাখা রয়েছে। ভবিষ্যতে বিশ্বজুড়ে আরো অনেক আউটলেট খোলার স্বপ্ন রয়েছে জয়ন্তীর। সূত্র- আনন্দবাজার।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর