বাবাকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করলো ছেলে!

বাবাকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করলো ছেলে!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৩৪ ৭ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১৪:৩৫ ৭ জুলাই ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় হুমায়ুন কবীর নামে এক বৃদ্ধ বাবাকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে ছেলে। 

মঙ্গলবার সকাল ৯ টার দিকে উপজেলার ছয়ফুল্লাকান্দি ইউপির পাড়াতলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। পরে গ্রামবাসীর সহায়তায় ছেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, নিহত হুমায়ুন কবীর পল্লী বিদ্যুতের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছিলেন। টাকার জন্যে প্রায়শই ছেলে রাজীব তার বাবার সঙ্গে খারাপ আচরণ করতেন। কখনো কখনো ছেলের হাতের মারও খেতেন হুমায়ুন কবীর। মুখ বুঝে সব কিছু সহ্য করতেন।  

মঙ্গলবার সকালে হুমায়ুন কবীরের কাছে এক হাজার টাকা চায় রাজীব। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে বৃদ্ধ বাবাকে গুরুতর আহত করেন। একপর্যায়ে হুমায়ুন কবীর মাটিতে লুটিয়ে পড়লে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। 

এ ঘটনার পর নিহতের স্ত্রী ও মেয়ে সংজ্ঞা হারিয়ে অচেতন হয়ে পড়েন।

স্থানীয় ছয়ফুল্লাকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ফুল মিয়া চৌধুরী জানান, রাজীব নেশাগ্রস্ত হয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল বলে প্রতিবেশিদের মাধ্যমে জেনেছি। প্রায়শই সে তার বাবাকে মারধর করতো। এরই অংশ হিসেবে সকালে রাজীব তার বাবাকে নৃশংসভাবে হত্যা করে। 

তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ঘাতক ছেলে রাজিবের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

বাঞ্ছারামপুর থানার ওসি মো. সালাউদ্দিন আহমেদ জানান, হতাাকাণ্ডের খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ঘাতক ছেলে মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল বলে স্থানীয়দের মাধ্যমে জেনেছি। দুপুরে গ্রামবাসীর সহায়তায় রাজীবকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে